শিরোনাম

আফগানিস্তানকে বিশাল ব্যবধানে হারালো ইংল্যান্ড

স্পোর্টস ডেস্ক  |  ০৬:১৪, জুন ১৯, ২০১৯

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে আফগানিস্তান জিতবে তা অতিবড় আফগান সমর্থকও হয়তো ভাবেননি। কিন্তু এতটা লড়াই দেবে সেটাও কি ভেবেছিল?

রানের পাহাড়ের সামনে দাঁড়িয়ে স্নায়ুর যুদ্ধের লড়াইটা কিন্তু দারুণ লড়ল আফগানিস্তান। হারের মুখ দেখতে হলেও এই লড়াইকে অস্বীকার করার কোনও জায়গা নেই।

মঙ্গলবার ম্যানচেস্টারের ওল্ড ট্রাফোর্ডে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যান।

যে ভেবে এই সিদ্ধান্ত তাতে তাঁরা ১০০ শতাংশ সফল। এই মাঠেই পরে ব্যাটিং নিয়ে রবিবার ধরাশায়ী হয়েছিল পাকিস্তান।

সেখানে ইংল্যান্ড দেখিয়ে দিল ইমরান খানের উপদেশ পাকিস্তান না মানলেও তাঁরা মেনে সাফল্য পেল। প্রথমে ব্যাট করে ৩৯৭ রানের পাহাড় তৈরি করল তারা।

সেই লক্ষ্যে নেমে দারুণ লড়াই দিয়ে ২৪৭-৮-এ থামল আফগানিস্তান। ১৫০ রানে ম্যাচ জিতে নিল ইংল্যান্ড।

দলের নিয়মিত ওপেনার জেসন রয় চোটের জন্য না থাকায় জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে ওপেন করতে নেমেছিলেন জেমস ভিনস।

তিনি নিজে বড় রান করতে না পারলেও ওপেনিংয়ে ভিত তৈরি করতে সাহায্য করে গেলেন। ২৬ রানে আউট হলেন তিনি। জনি বেয়ারস্টো আউট হলেন ৯০ রান করে।

এর পর জো রুট আর ইয়ন মর্গ্যানের ঝোনো ব্যাটিংয়ের সামনে পনে রীতিমতো ভ্যনিশ হয়ে গেল আফগানিস্তানের বিখ্যাত বোলিং।

জো রুট আউট হলেন ৮৮ রানে। ইয়ন মর্গ্যান থামলেন ৭১ বলে ১৪৮ রানের ইনিংস খেলে।

১৭টি ছক্কা হাঁরিয়ে ওয়ান ডে-তে এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ডও করে ফেললেন তিনি।

ইংল্যান্ডের হল বিশ্বকাপের মঞ্চে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড। ৫০ ওভারে ইংল্যান্ড যখন থামল তখন ছয় উইকেট হারিয়ে ৩৯৭ রানের বিরাট পাহাড় তৈরি করে ফেলেছে হোম টিম।

আফগানিস্তানের হয়ে তিনটি করে উইকেট নিলেন দওলত জার্দান ও গুলবাদিন নাইব।

জবাবে ব্যাট করতে ‌নেমে শেষ বল পর্যন্ত লড়াই দিল আফগানিস্তান। ওপেনার নুর আলি জার্দান কো‌নও রান না করেই ফিরলেন।

তার পর গুলবাদিন নাইব ৩৭, রহমত সাহ ৪৬, হশমতুল্লা শাহিদি ৭৬, আসঘর আফগান ৪৪, মহম্মদ নবি ৯, নাজিবুল্লা জার্দান ১৫ রান করে আউট হলেন।

হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট, দুই ম্যাচ বাইরে ইংল্যান্ডের জেসন রয়

ইংল্যান্ডের হয়ে তিনটি উইকেট নিলেন আদিল রশিদ ও জোফরা আর্চার। দুটো উইকেট মার্ক উডের।

৫০ ওভারে ২৪৭-৮-এ শেষ হয়ে গেল আফগানিস্তান। ১৫০ রান হারতে হল তাদের।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড: ৫০ ওভারে ৩৯৭/৬ (ভিন্স ২৬, বেয়ারস্টো ৯০, রুট ৮৮, মর্গ্যান ১৪৮, বাটলার ২, স্টোকস ২, মইন ৩১*, ওকস ১*; মুজিব ১০-০-৪৪-০, দৌলত ১০-০-৮৫-৩, নবি ৯-০-৭০-০, নাইব ১০-০-৬৮-৩, রহমত ২-০-১৯-০, রশিদ ৯-০-১১০-০)

আফগানিস্তান: ৫০ ওভারে ২৪৭/৮ (জাদরান ০, নাইব ৩৭, রহমত ৪৬, শাহিদি ৭৬, আসগর ৪৪, নবি ৯, নাজিবউল্লাহ ১৫, রশিদ ৮, ইকরাম ৩*, দৌলত ০*; ওকস ৯-০-৪১-০, আর্চার ১০-১-৫২-৩, মইন ৭-০-৩৫-০, উড ১০-১-৪০-২, স্টোকস ৪-০-১২-০, রশিদ ১০-০-৬৬-৩)

ফল: ইংল্যান্ড ১৫০ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: ওয়েন মর্গ্যান

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত