শিরোনাম

ডিএনসিসির মেয়র পদে উপনির্বাচন হতে বাধা নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৪:০৬, জানুয়ারি ১৬, ২০১৯

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এর উপনির্বাচনের ওপর দেওয়া স্থগিতাদেশ বাতিল করেছেন উচ্চ আদালত। একইসঙ্গে নির্বাচন বাতিলের বিষয়ে জারি করা রুলসহ আবেদনকারীদের রিট খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। ফলে ডিএনসিসি’র উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে আর কোনও বাধা রইল না বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

রিট আবেদনকারীদের পক্ষে আইনজীবী উপস্থিত না থাকায় বুধবার (১৬ জানুয়ারি) বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও মোহাম্মদ উল্লাহের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন-অ্যাডভোকেট কাজী মইনুল হোসেন।

এর আগে ২০১৮ সালের ১৬ জানুয়ারি ডিএনসিসি’র নির্বাচন স্থগিত চেয়ে হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট দায়ের করেন নতুন ওয়ার্ড হিসেবে যুক্ত হওয়া ভাটারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান ও বেরাইদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম। নতুন ওয়ার্ডের সীমানা নির্ধারণ না হওয়ায় তারা এ নির্বাচন স্থগিত চেয়ে রিট করেন। রিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, স্থানীয় সরকার সচিব, উত্তর সিটি করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়রকে বিবাদী করা হয়েছে। অপর রিটটিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশন সচিব, স্থানীয় সরকার সচিব ও নির্বাচন কমিশনের যুগ্ম সচিবকে বিবাদী করা হয়।

রিটের শুনানি নিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) উপনির্বাচনের ওপর তিন মাসের স্থগিতাদেশের নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ২০১৮ সালের ৯ জানুয়ারি নির্বাচন কমিশনের জারি করা পরিপত্রটি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন আদালত। এরপর ডিএনসিসি’র উপনির্বাচন স্থগিত হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুতে ডিএনসিসির মেয়র পদটি শূন্য হয়। আইন অনুযায়ী ইসি গত বছরের ৯ জানুয়ারি এ পদে উপনির্বাচন এবং ডিএনসিসিতে নতুন যুক্ত ১৮টি ওয়ার্ডে সাধারণ নির্বাচন এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে যুক্ত হওয়া ১৮টি ওয়ার্ডের নির্বাচনের তফসিল দেয়। ওই বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি ভোট হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু আলাদা রিট মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আদালত গেল বছর ১৭ জানুয়ারি ডিএনসিসি নির্বাচনের তফসিলের কার্যকারিতা ছয় মাসের জন্য স্থগিত করেন। আদালত পরবর্তীতে আরও ছয় মাসের জন্য নির্বাচন কার্যক্রম স্থগিত করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত