শিরোনাম

৩১ জানুয়ারির রাতে দেখা যাবে চাঁদের ৩ রূপ!

আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১৮:১০, জানুয়ারি ১৬, ২০১৮

বিগত কয়েকমাসে চাঁদের বিভিন্ন রকমফের লক্ষ্য করেছে মানুষ। কখনও সুপারমুন তো কখনও ব্লু মুন। মাঝে-মাঝেই চমক দিয়েছে চাঁদমামা। এবার দেখা যাবে আরও বড় চমক। আকাশে ঘটতে চলছে এমন এক আশ্চর্য ঘটনা যা আরেকবার দেখার সুযোগ হয়ত আপনার হবে না। একরাতে আকাশে একসঙ্গে দেখা যাবে তিনরকম চাঁদ।

১৫১ বছর অন্তর ঘটে এমন ঘটনা। এক রাতে দেখা যাবে ব্লু মুন, সুপারমুন এবং ব্লাড মুন। এক এক করে তিনরকম রূপ পরিবর্তন করবে চাঁদ। এই বিরল ঘটনা ঘটবে ৩১ জানুয়ারি, ২০১৮ সালে।

চন্দ্রগ্রহণের দিন এক সরলরেখায় আসে সূর্য, চাঁদ ও পৃথিবী। সূর্য আর চাঁদের মাঝে থাকে পৃথিবী। পৃথিবীর ছায়া চাঁদের উপর পড়ায় ঢাকা পড়ে যায় গোটা চাঁদ। পৃথিবী থেকে আর দেখা যায় না চাঁদকে। তখনই হয় পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ। ৩১ জানুয়ারিও হবে পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণ। কিন্তু সেদিন গ্রহণ ছাড়াও দেখা যাবে অভাবনীয় কিছু দৃশ্য। নাসা চাঁদের এই দুর্লভ রূপ বদলের নাম দিয়েছে “সুপার ব্লু ব্লাড মুন”। একরাতে তিনরকম চাঁদ দেখতে পাওয়া বিরল ঘটনা। এবার জেনে নেয়া যাক, ৩১ জানুয়ারি আকাশে তাকালে ঠিক কী কী দেখা যাবে।

প্রথমত যেটা দেখা যাবে সেটা হল সুপারমুন। পূর্ণিমার চাঁদ যত বড় হয় তার থেকে ৭ শতাংশ বেশি বড় দেখাবে সেদিনের চাঁদকে। অন্যান্য পূর্ণিমার চাঁদের তুলনায় ৩০ শতাংশ বেশি উজ্জ্বলও হবে ওই সুপারমুন। এরপর যেটা লক্ষ্য করা যাবে তা হল, উজ্জ্বল এই সুপারমুনের রং হবে নীল। অর্থাৎ সুপারমুন হবে ব্লু মুন। চাঁদের ভেলকি এখানেই শেষ নয়। ব্লু মুনের পর দেখা যাবে ব্লাড মুন। পূর্ণ চন্দ্রগ্রহণের সময় সূর্যের আলো বাধা পায় পৃথিবীতে।

ফলে তা চাঁদ পর্যন্ত এসে পৌঁছায় না। পৃথিবী চাঁদের তুলনায় বড় হওয়ায় গোটা চাঁদ পৃথিবীর ছায়ায় ঢাকা পড়ে যায়। তবে পৃথিবীর সলিড অংশ আলোয় বাধা সৃষ্টি করলেও বায়ুমণ্ডল ও জলভাগের মতো কিছু ট্রান্সপারেন্ট অংশ রয়েছে, যেখানে সাদা আলো পাশ করে। এবং রামধনুর বর্ণালির শুধু লাল অংশ চাঁদে গিয়ে পড়ে। তখন চাঁদকে লালছে রঙের দেখতে লাগে। যাকে বলা হয় ব্লাড মুন।

সুপারমুন ও ব্লু মুন প্রায় সব জায়গা থেকে দেখা গেলেও ব্লাড মুন সবথেকে ভালো দেখা যাবে বিশেষ বিশেষ এলাকা থেকে। এই সময় চাঁদের সামনে থাকবে প্রশান্ত মহাসাগর। ফলে ব্লাড মুন সবথেকে ভালো দেখা যাবে নিউজ়িল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার কিছু অংশ এবং সেন্ট্রাল ও ইস্টার্ন এশিয়ার দেশগুলিতে। তবে আফ্রিকা এবং অ্যামেরিকায় এই বিরল দৃশ্য বেশিরভাগ জায়গাতেই দেখা যাবে না। তাই নাসা-র পরামর্শ, যেসব জায়গা থেকে দেখা যাবে চাঁদের এই রূপ বদল তারা যেন মিস না করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত