শিরোনাম

জমজমাট স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা

প্রিন্ট সংস্করণ॥নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ০১:১৫, জুলাই ০৬, ২০১৯

সাপ্তাহিক ছুটির দিনে জমজমাট হয়ে উঠেছে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা। সকাল থেকে দর্শনার্থীদের ভিড় দেখা যায় এক্সপো মেকারের আয়োজনে চলমান দ্বাদশ এ মেলায়।

গতকাল শুক্রবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) দ্বিতীয় দিনের মতো চলে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা।

সকাল ১০টায় মেলা প্রদর্শনী উন্মুক্ত হওয়ার পর থেকেই বাড়তে থাকে দর্শনার্থীদের উপস্থিতি।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় বিভিন্ন বয়স ও পেশার দর্শনার্থীদের সর্বশেষ প্রযুক্তির স্মার্টফোন এবং গ্যাজেট সম্পর্কে অভিজ্ঞতা নিতে দেখা যায় মেলায়।

মেলায় আসা বিভিন্ন দর্শনার্থীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এবারের মেলায় তাদের বেশি আকর্ষণ আল্ট্রা জুম এবং ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্স ক্যামেরার স্মার্টফোনের দিকে।

রাজধানীর মিরপুরের বাসিন্দা এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শাকিলা পারভিন বাবার সঙ্গে এসেছেন ফোন কিনতে। আল্ট্রা জুম অথবা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল লেন্সের ভালো হ্যান্ডসেট খুঁজছেন।

তিনি বলেন, ঈদে কিছু টাকা জমিয়েছিলাম। তখনই প্ল্যান (পরিকল্পনা) ছিল এই মেলায় এসে স্মার্টফোন দেখবো।

কারণ এখানে সর্বশেষ প্রযুক্তির ডিভাইস ডিসকাউন্টে পাওয়া যায়। আল্ট্রা জুম এবং ওয়াইড অ্যাঙ্গেল সেলফি ক্যামেরার কয়েকটা হ্যান্ডসেট দেখেছি। দূর থেকে ছবি তোলার জন্য অথবা গ্রুপ ছবি তোলার জন্য দারুণ হতে পারে এসব সুবিধার ডিভাইস।

অন্যদিকে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) সমৃদ্ধ হ্যান্ডসেট খুঁজছেন ব্যবসায়ী অন্তু আহমেদ।

তিনি বলেন, মোবাইল তো এখন আর শুধু কথা বলা বা ছবি তোলার যন্ত্রে সীমাবদ্ধ নেই। আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা), অগমেন্টের রিয়েলেটি, ভার্চুয়াল রিয়েলিটি এসব বিষয়ও চলে এসেছে।

সেসব প্রযুক্তিই দেখতে এলাম। কোনোটা পছন্দ হয়ে গেলে কিনে ফেলবো। মেলা থেকে স্মার্টফোন এবং গ্যাজেট কেনার আরেক কারণ মূল্যছাড় ও বিভিন্ন ধরনের উপহার।

মোহাম্মদপুরে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা হালিমা ইয়াসমিন মুক্তা বলেন, আমাদের মতো যারা সীমিত আয়ের মানুষ তারা অপেক্ষায় থাকি এ ধরনের আয়োজনের।

মেলায় মূল্যছাড় এবং অন্যান্য অফার থাকে। মূল্য পরিশোধে ক্যাশব্যাক অফার থাকে। যেমন এখানে দেখলাম ‘নগদে’ মূল্য পরিশোধ করলে ক্যাশব্যাক থাকছে। এসব অফার আমাদের জন্য অনেক উপকারী। দর্শনার্থীদের এমন উপস্থিতিতে সন্তুষ্ট মেলার আয়োজক এবং মেলায় অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোও।

মেলার আহ্বায়ক এক্সপো মেকারের এজিএম সিরাজুল ইসলাম সার্থক বলেন, বরাবরই শুক্রবার সাপ্তাহিক ছুটির দিনে মেলায় তিল ধারনের জায়গা হয় না। দিনের শুরু থেকেই বেচাবিক্রিও হয় অনেক। এবারো ছাড় উপহার দিচ্ছে সব ব্র্যান্ডগুলো। তাই বিক্রিও বেশি হবে অন্যবারের চেয়ে।

গত বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে তিন দিনব্যাপী এ মেলা। চলবে শনিবার (আজ) পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে মেলা।

মেলায় প্রবেশ মূল্য ২০ টাকা। যা থেকে প্রাপ্ত অর্থ ক্যান্সার রোগীর চিকিৎসায় দেয়া হবে। এছাড়াও প্রতিবন্ধী এবং শিক্ষার্থীরা আইডি কার্ড দেখিয়ে মেলায় বিনামূল্যে প্রবেশ করতে পারবেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত