শিরোনাম

৫৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের দরপতন

প্রিন্ট সংস্করণ॥অর্থনৈতিক প্রতিবেদক  |  ০১:৪৭, অক্টোবর ১৯, ২০১৮

দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) গতকাল বৃহস্পতিবার লেনদেন হওয়া ৫৬ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দরপতন হয়েছে। অর্ধেকের বেশি প্রতিষ্ঠানেরর শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার পরও এদিন ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক কিছুটা বেড়েছে। তবে কমেছে, অপর দুটি মূল্যসূচক। আর সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচকও কমেছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের দরপতনের দিনে ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও কমেছে। ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া ১০৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম আগের দিনের তুলনায় বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে ১৮৮টি। আর ৪৭টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমার পরও ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় দশমিক ৭৩ পয়েন্ট বেড়ে ৫ হাজার ৩৮১ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। এ মূল্যসূচকটি ঊর্ধ্বমুখী রাখতে প্রধান ভূমিকা রেখেছে ব্যাংক খাত। পতনের বাজারে এ খাতের মাত্র তিনটি ব্যাংকের শেয়ার দাম কমেছে। বিপরীতে দাম বেড়েছে ২১টি ব্যাংকের শেয়ারের। অবশ্য ব্যাংক কোম্পানির এমন দাম বৃদ্ধিও ডিএসইর অপর দুটি সূচককে পতনের হাত থেকে রক্ষা করতে পারেনি। এর মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ সূচক ৪ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ২৪৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএসই-৩০ আগের দিনের তুলনায় ১ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৮৯৬ পয়েন্টে অবস্থান করছে। দিনভর ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৭৬ কোটি ৩৩ লাখ টাকা। আগের কার্যদিবসে লেনদেন হয় ৫১১ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। সে হিসাবে লেনদেন কমেছে ৩৫ কোটি ১১ লাখ টাকা। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সব থেকে বেশি লেনদেন হয়েছে ইন্দো-বাংলা ফার্মাসিউটিক্যালের শেয়ার। কোম্পানিটির ৩২ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে থাকা ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশনের ২৭ কোটি ৪৫ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। ২৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনে তৃতীয় স্থানে রয়েছে কেপিসিএল। লেনদেনে এরপর রয়েছে- ড্রাগন সোয়েটার, সামিট পাওয়ার, শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, উত্তরা ব্যাংক, সিলভা ফার্মাসিউটিক্যাল, ভিএফএস থ্রেড ডাইং এবং সিটি ব্যাংক। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সার্বিক মূল্যসূচক সিএসসিএক্স ২ পয়েন্ট কমে ১০ হাজার ১৯ পয়েন্টে অবস্থান করছে। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ২৯ কোটি ৮৪ লাখ টাকা। লেনদেন হওয়া ২২৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭৩টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ১২৬টির। আর দাম অপরিবর্তিত রয়েছে ৩০টির।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত