শিরোনাম

হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক  |  ১২:২২, ফেব্রুয়ারি ২০, ২০১৯

 

নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজে এবারো হারের ষোলকলা পূর্ণ করল মাশরাফিরা। অতএব বাংলাদেশের জয়টা এবারো অধরাই রয়ে গেল। মজার ব্যাপার ছিল, এ সিরিজে ৮ সংখ্যার বৃত্তের মাঝেই নিজেদের সর্বস্ব বিলিয়ে দিয়েছে টাইগাররা। নেপিয়ারে প্রথম ম্যাচে ৮ উইকেটে, ক্রাইস্টচার্চে দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটে এবং গতকাল ডানেডিনে শেষ ওডিআইতে ৮৮ রানে পরাজয়! নিউজিল্যান্ড সফরে কিছুটা আশাবাদী ছিলো টাইগার ভক্তরা। কারণ এবার বাংলাদেশি বোলার ও ব্যাটসম্যানরা জ্যোতি ছড়িয়েছিল সদ্য সমাপ্ত বিপিএলে। তাই অন্তত একটি জয় প্রত্যাশা ছিলো ক্রিকেটপ্রেমীদের। কিন্তু সে আশায় গুঁড়েবালি ঢেলে দিয়েছেন টাইগাররা। এতে চরম হতাশ হয়েছেন সমর্থকরাও। নিজেদের হারের ধারাবাহিকতা বজায় রাখল বেঙ্গল টাইগাররা এবারো। ব্ল্যাক ক্যাপসদের দেশে টানা পাঁচ সফরে জয়ের মুখ দেখেনি বাংলাদেশের সোনার ছেলেরা। তবে এবারের সিরিজে মন্দের ভালো খবর ছিলো সাব্বির রহমানের সেঞ্চুরিটা। পাশাপাশি চরম হতাশায় ডুবিয়েছেন টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ও বোলারদের ব্যর্থতা। এ ব্যাপারটা স্বীকারও করেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি।এদিকে, প্রথম দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ হার নিশ্চিত হয়েছিল আগেই। শেষ ম্যাচে ছিল প্রতিরোধ গড়ে তুলে হোয়াইটওয়াশ এড়ানোর সুযোগ। তবে বাংলাদেশের সেই সুযোগটিও হাতছাড়া হয়েছে। নিয়ম রক্ষার ম্যাচে এদিন অবশ্য লড়াই করেছে বাংলাদেশ। অন্তত আগের দুটি ম্যাচের চেয়ে শেষ ম্যাচে গতকাল কিছুটা লড়াকু মানসিকতা দৃশ্যমান ছিল মাশরাফি বাহিনীর। ব্যাট হাতে বরাবরের মতো টপ অর্ডার ধসে পড়ার দিনে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন সাব্বির রহমান। নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই সাব্বিরকে দলভুক্ত করিয়েছিলেন মাশরাফি। গতকাল ম্যাচ শেষে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফির মুখে ফুটে উঠে হতাশার সুর। তবে সাব্বিরের ইনিংসে যেন ক্ষণিকের স্বস্তি খুঁজলেন মাশরাফি। মাশরাফি বলেন, দলের সবাই খুব হতাশ। তবে সাব্বিরের ইনিংসটি বেশ ইতিবাচক ছিল। তিনি বলেন, টস জিতে কিউইদের ব্যাটিংয়ে পাঠিয়ে ৩৫ ওভার পর্যন্ত প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলেছিল বাংলাদেশ দল। বাংলাদেশের হাত থেকে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নেন জিমি নিশাম, যিনি উপহার দিয়েছেন দারুণ এক ইনিংস। মাশরাফি আরও বলেন, আজকের (গতকাল) ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের ইনিংসের ৩৫তম ওভার পর্যন্ত আমরা ঠিক পথেই ছিলাম। তবে জিমি নিশামের ওই ইনিংসের পর ম্যাচ আমাদের জন্য কঠিন হতে থাকে। তাই তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের তিনটি ম্যাচেই হেরে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ডের কাছে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হলো বাংলাদেশ। ওয়ানডে সিরিজের পর এবার টেস্ট সিরিজের অপেক্ষা। প্রথম টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি-৪ মার্চ, হ্যামিল্টনে। এখন দেখার পালা টেস্টে ঘুরে দাঁড়াতে পারে কি না বেঙ্গল টাইগাররা। নাকি, একটার পর একটা টেস্ট হারের খবরের অপেক্ষায় বাংলাদেশ? এদিকে, গতকাল আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফিরে তামিমের সাথে কথা বলার সময় মুশফিকের শরীরী ভাষা দেখে তেমন কিছুই আন্দাজ করা হয়েছিল। তবে অধিনায়ক জানিয়েছেন ভিন্ন কথা। দলীয় ২ রানের মধ্যেই টপ অর্ডারের তিন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে দল ধুঁকেছে। তার ওপরে চাপ নিউজিল্যান্ডের দেয়া পাহাড় সমান রানের টার্গেট। ইনিংস মেরামতের দায়িত্ব এসে পড়েছিল মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহর ওপর। আশাও জাগছিল তাদের দুজনের ব্যাটিং দেখে। কিন্তু নবম ওভারের পঞ্চম বলে ট্রেন্ট বোল্টের মিডল স্টাম্প বরাবর লেন্থ বল ফ্লিক করতে গিয়ে টপ এজে ক্যাচ উঠিয়ে দেন মুশফিক। ২৭ বলে ১৭ রান করে ক্যাচ আউট হয়ে ফিরে যান তিনি। কিছুক্ষণ পর দশম ওভারের দ্বিতীয় বল শেষেই টিভি পর্দায় দেখা যায় তামিম মুশফিককে কিছু একটা বলছিলেন, মুশফিক যখন জবাব দিচ্ছিলেন তখন তার শরীরী ভাষা ছিল ক্ষিপ্ত। প্রথমে ধারণা করা হচ্ছিল দলের বিপদে ও নিজে রান না পাওয়ায় মেজাজ হারিয়েছেন তিনি। ধারাভাষ্যকাররাও দুজনের মধ্যকার ‘বিতর্ক’ নিয়ে তখন কৌতূহল জানান। আসলে তখন কি হয়েছিলো দুজনের মধ্যে সেটা তৎক্ষণিক জানা যায়নি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
নিউজিল্যান্ড : ৩৩০/৬ (৫০ ওভার)
বাংলাদেশ : ২৪২/১০ (৪৭.২ ওভার)
সাব্বির সেঞ্চুরি (১০২)
ফলাফল : নিউজিল্যান্ড ৮৮ রানে জয়ী।
ম্যাচ সেরা : টিম সাউদি (নিউজিল্যান্ড)
সিরিজ সেরা : মার্টিন গাপটিল (নিউজিল্যান্ড)।
সিরিজ : নিউজিল্যান্ড ৩-০ তে জয়ী।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত