শিরোনাম

সিলেটের দর্শকদের খুশি করতে চান তাসকিন

প্রিন্ট সংস্করণ॥ক্রীড়া প্রতিবেদক  |  ০০:৫০, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

বাংলাদেশের প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) সিলেট পর্বের পর্দা উঠবে আগামী ১৫ জানুয়ারি। ঢাকা পর্বের প্রথম অংশ আজই শেষ হয়ে যাচ্ছে। মিরপুরের রহস্যময় উইকেট খেলোয়াড়দের বেশ বিভ্রান্তির কারণ ছিলো! সিলেটের হোম গ্রাউন্ড স্বাগতিক দল হিসেবে খেলবে সিলেট সিক্সার্স। তাসকিন আহমেদ জানান, নিজেদের মাঠে দর্শকদের বিশেষ উপহার দিতে চাই। সিলেটবাসীর ক্রিকেটপ্রেম নিয়ে নতুন করে কিছু বলার নাই। গত বিপিএলে সিলেটের প্রায় প্রতিটা ম্যাচ ছিল দর্শকে ভরপুর। এবারও এর ব্যতিক্রম হওয়ার কথা নয়। তাসকিন বলেন, সিলেটের দর্শকদের উপস্থিতি তার দলকে দেবে বাড়তি প্রেরণা। হয়তো একটু বাড়তি প্রেরণাও দিতে পারে যেহেতু সিলেটের ফ্যানরা আসবে, সিলেটকে সাপোর্ট করবে। আশা করছি সিলেটের ফ্যানদের সিলেটে ভালো কিছু উপহার দিবো আমরা। মিরপুরের উইকেটকে আদর্শ টি-২০ উইকেট বলে আখ্যা দেওয়ার সুযোগ নেই। এক ম্যাচে বড় স্কোর হলে পরের দুটি ম্যাচে মুখ থুবড়ে পড়ছেন ব্যাটসম্যানরা। যেন মিনিটে মিনিটে চরিত্র বদলাচ্ছে হোম অব ক্রিকেটের উইকেট। সিলেট পর্বে উইকেটের এমন আচরণ থাকবে না- প্রত্যাশা সবার এমনটিই। যদিও তাসকিন জানালেন, মাঠে যাওয়ার আগ পর্যন্ত সিলেটের উইকেট নিয়ে অনুধাবনের চেষ্টা করাও কঠিন, এটি আসলে মাঠে গিয়ে না খেলা পর্যন্ত বোঝা কঠিন। একেকদিন একেকরকম আচরণ করে উইকেট। হয়তো একদিন একটু থেমে যায় বল, কোনোদিন একটু টার্ন করে। একেক উইকেটে একেকরকম বোলিং প্ল্যান নিয়ে বোলিং করাটাই আসলে লক্ষ্য থাকে। চিটাগং ভাইকিংসের বিপক্ষে ম্যাচে নিজের ভালো পারফর্ম করা নিয়ে তাসকিন বলেন, আসলে আমি চেষ্টা করেছিলাম যে- যেরকম উইকেট ছিল আমার কাছে মনে হয়েছিল এবং আমাদের পরিকল্পনাও ছিল হার্ড লেন্থে হিট করা। মানে উইকেট টু উইকেট বোলিং করা, ভেরিয়েশন করা। আমি আমার পরিকল্পনা ঠিকমত কাজে লাগাতে পারায় হয়তো সাফল্য পেয়েছিলাম গত ম্যাচে।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত