শিরোনাম

আজ ঘুরে দাঁড়াতে চায় সাকিবরা

প্রিন্ট সংস্করণ॥ক্রীড়া প্রতিবেদক  |  ০২:২৬, জুলাই ১২, ২০১৮

ক্যারিবীয় দ্বিতীয় টেস্টে ভালো খেলার আশাবাদ জানালেন বোলিং কোচ ওয়ালশ। ঘুরে দাঁড়াতে চায় সাকিব-তামিমরাও। জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে আজ বৃহস্পতিবার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ। প্রথম টেস্টে ব্যর্থতার পর এটি সাকিবদের বড় পরীক্ষাই। দলের বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশের ঘরেই ঘুরে দাঁড়ানোর পরীক্ষায় নামবে বাংলাদেশ প্রথম টেস্টে বাজে পারফরম্যান্সের দায়টা নিজেদের কাঁধে তুলে নিয়েছেন ক্রিকেটাররা। জ্যামাইকায় সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টে ক্রিকেটাররা তাই ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া। এমন কথাই বারবার বলেছেন তাঁরা। তামিম ইকবাল ও নুরুল হাসান সোহান জানিয়েছেন, অ্যান্টিগার দুঃস্বপ্ন দ্রুতই ভুলতে চান তাঁরা। এবার বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ কোর্টনি ওয়ালশও জানালেন একই আশাবাদের কথা। মজার ব্যাপার হচ্ছে, বাংলাদেশের ঘুরে দাঁড়ানোর এই লড়াইটা হবে ওয়ালশের চৌহদ্দিতেই। জ্যামাইকার স্যাবাইনা পার্কে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এই টেস্ট বাংলাদেশের সিরিজ বাঁচানোর। সঙ্গে ব্যাটসম্যানদের ভালো করার চ্যালেঞ্জও আছে। আগের টেস্টে ব্যাটসম্যানদের নিদারুণ ব্যর্থতায় এক ইনিংস ও ২১৯ রানের ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। ওয়ালশ এই ব্যর্থতাটুকু মেনে নিচ্ছেন। জ্যামাইকার স্থানীয় এক টিভি চ্যানেলকে তিনি বলেছেন, প্রথম টেস্ট খারাপ হয়েছে। আমরা ভালো করতে পারিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ভালো খেলছে। তবে দ্বিতীয় টেস্টে আমরা ভালো খেলার ব্যাপারে আশাবাদী।এই স্যাবাইনা পার্কেই ২০০১ সালে ক্যারিয়ারের শেষ টেস্ট খেলেছিলেন ওয়ালশ। এটি তাঁর নিজের জন্মভূমিও। ৫১৯ উইকেটের পাহাড়ে উঠে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের ইতি টেনেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের এ কিংবদন্তি। স্যাবাইনা পার্ক তাই ওয়ালশের ক্যারিয়ারের জন্য বিশেষ স্মৃতি। সেই স্মৃতি দলের পেসারদের সঙ্গে ভাগ করে নিয়ে তাঁদের উদ্দীপ্ত করেছেন কি না এই প্রশ্নের জবাবে ওয়ালশ বলেন, হ্যাঁ, ওঁদের এই টেস্ট উপভোগ করতে বলেছি। বলেছি এটা পেসারদের জন্য বড় সুযোগ। নিজেদের প্রমাণ করো। আমি এই টেস্টের দিকে তাকিয়ে আছি। প্রথম টেস্টে বড় ব্যবধানে হারায় এই ম্যাচে তাই এমনিতেই চাপে আছে বাংলাদেশ দল। ওয়ালশের কাছে এই ম্যাচটা বাংলাদেশ দলের জন্য বড় পরীক্ষা। ভুলগুলো শুধরে নিয়ে নিজেদের খেলাটা খেলতে হবে। অ্যান্টিগার মতো স্যাবাইনা পার্কেও পেসবান্ধব উইকেটের প্রত্যাশা করছেন ওয়ালশ, অবশ্যই অ্যান্টিগার মতো উইকেট প্রত্যাশা করছি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ তাঁদের সুবিধামতোই উইকেট বানাবে। এখানেও সিমিং উইকেটের প্রত্যাশা করছি। এদিকে, এই সিরিজে বাংলাদেশ দলকে নেতৃত্ব দিবেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। অবশ্য মাশরাফির এই সিরিজে খেলা নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। নড়াইল এক্সপ্রেসের সহধর্মীনি অসুস্থ। সে কারণেই শঙ্কা। তবে বিসিবির নির্বাচকরা শুক্রবার পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন মাশরাফিকে পাওয়ার জন্য। তার মধ্যে যদি মাশরাফির খেলাটা নিশ্চিত না হয় তাহলে তার বদলি খেলোয়াড়ের নাম ঘোষণা করবে বিসিবি।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত