শিরোনাম

৫ উইকেট হারিয়ে চাপে বাংলাদেশ 

স্পোর্টস ডেস্ক  |  ২০:০০, ফেব্রুয়ারি ১৮, ২০১৮

লক্ষ্য পাহাড়সম, ২১১ রান। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে এই বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। স্কোরবোর্ডে মাত্র ৬৮ রান জমা করতেই হারিয়েছে প্রথম সারির পাঁচ ব্যাটসম্যানের উইকেট। এই রিপোর্ট লেখার সময় ১১ ওভার শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৫ ‍উইকেটে ৮৭ রান। ২২ রান করে উইকেটে আছেন মাহমুদউল্লাহ।

২১১ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে মাত্র ৮ রানের মাথায় ওপেনার সৌম্য সরকারের উইকেট হারায় স্বাগতিকরা। সেটি ছিল দ্বিতীয় ওভারের ঘটনা। পরের ওভারে সৌম্যর পথে হেঁটেছেন মুশফিকর রহিম ও মোহাম্মদ মিঠুনও। কেউই স্পর্শ করতে পারেননি দুই অঙ্কের কোটা। চতুর্থ উইকেটে ৩৭ রানের জুটি গড়ে ঘুরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু দলীয় ৫৯ রানের মাথায় অষ্টম ওভারে তামিমকে সাজঘরমুখী করেন বাঁহাতি স্পিনার আমিলা আপোনসো। পরের ওভারে আরিফুল হকও সাজঘরে ফিরে গেছেন মাত্র ২ রান করে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে হেরে গেছে বাংলাদেশ। সমতা ফেরানোর লক্ষ্য নিয়ে দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নেমেও খুব বেশি সুবিধা করে উঠতে পরেননি বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা। টস হেরে ব্যাটিংয়ে কুশল মেন্ডিস, গুনাথিলাকা, থিসারা পেরেরাদের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ভর করে মাত্র চার উইকেট হারিয়েই স্কোরবোর্ডে ২১০ রান জমা করেছে শ্রীলঙ্কা।

শুরু থেকেই ঝড়ো ব্যাটিং করে গেছে শ্রীলঙ্কা। কুশল মেন্ডিস ও গুনাথিলাকার ৬৬ বলের উদ্বোধনী জুটি থেকেই এসেছিল ৯৮ রান। একাদশতম ওভারে বাংলাদেশকে প্রথম সাফল্য এনে দিয়েছেন সৌম্য সরকার। ৪২ রান করে ফিরে গেছেন গুনাথিলাকা। তবে এরপরও বাংলাদেশি বোলারদের স্বস্তি দেননি মেন্ডিস ও পেরেরা। দ্বিতীয় উইকেটে তাঁরা গড়েছিলেন ৫১ রানের ঝড়ো জুটি। ১৬তম ওভারে এই জুটি ভাঙেন অভিষিক্ত আবু জায়েদ। সাজঘরে ফেরান ৩১ রান করা পেরেরাকে। পরের ওভারে ৭০ রান করা মেন্ডিসের উইকেটও তুলে নিয়েছিলেন মুস্তাফিজুর রহমান। শেষপর্যায়ে উপুল থারাঙ্গার ২৫ ও দাশুন সানাকার ৩০ রানের ছোট ইনিংস দুটিতে ভর করে স্কোরবোর্ডে ২১০ রান জমা করে শ্রীলঙ্কা।

সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্কোরকার্ডে নিজেদের টি-টোয়েন্টি ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান তুলেও বাংলাদেশকে হেরে যেতে হয়েছিল ছয় উইকেটে।

সিলেটে বাংলাদেশ মাঠে নামছে চার পরিবর্তন নিয়ে। ফিরে এসেছেন দলের উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। অভিষেক সিরিজে অফস্পিনার মেহেদী হাসানের সঙ্গে সিলেটের ছেলে আবু জায়েদ রাহীর অভিষেকটাও হয়ে গেল নিজের ঘরের মাঠেই। আফিফ হোসেনের পরিবর্তে দলে এসেছেন মোহাম্মদ মিঠুন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত