শিরোনাম

ইতিহাস গড়া হলো না মেয়েদের

০০:২২, জানুয়ারি ০৫, ২০১৭

প্রথমার্ধ শেষ হয় ১-১ সমতায়। দ্বিতীয়ার্ধেও লড়াইয়ের ইঙ্গিত মিলেছিল। কিন্তু হাস্যকর কিছু ভুলের চড়া মাশুল দিতে হলো বাংলাদেশকে।

ভারতের কাছে ৩-১ ব্যবধানে হেরে প্রথমবারের মতো মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে গেল।

টানা চতুর্থবারের মতো সাফের শিরোপা স্বাদ পেল ভারত। এই বাংলাদেশের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করে ‘বি’ গ্রুপে রানার্সআপ হয়েছিল তারা। সাবিনারা হয়েছিল গ্রুপ সেরা।

স্বপ্নের ফাইনাল বাংলাদেশ শুরু করেছিল টুর্নামেন্টে কোনো গোল না খাওয়ার তৃপ্তি নিয়ে। শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে বুধবার সন্ধ্যায় চেনা মাঠে, হাজার পাঁচেক চেনা দর্শকের সমর্থন নিয়ে খেলতে নামা ভারত শুরু থেকে মেলেছিল আগ্রাসী ফুটবলের পসরা। শুরুতে অল্পের জন্য বেঁচেও যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় মিনিটে ডান দিকের ডি-বক্সের একটু ওপর থেকে সাসমিতা মালিকের ফ্রি-কিক দূরের পোস্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

গ্রুপ পর্বে রক্ষণাত্মক কৌশলে ভারতকে আটকে দিয়েছিল বাংলাদেশ। সেই রক্ষণের ভুলে একাদশ মিনিটে এগিয়ে যায় ভারত। শিউলি আজিমের কাছ থেকে বল কেড়ে নিয়ে বাঁ-দিক থেকে সাসমিতার বাড়ানো ক্রসে প্লেসিং শটে জালে জড়িয়ে দেন দাঙ্গমেই গ্রেসি। ভারতের এই ফরোয়ার্ড শট নেওয়ার আগে তা বিপদমুক্ত করার সুযোগ ছিল শামসুন্নাহারের সামনে। একটু পর বালা দেবির ক্রসে কমলা দেবির হেড অল্পের জন্য ঠিকানা খুঁজে পায়নি।

৩৯তম মিনিটে গোছালো প্রতিআক্রমণ থেকে সমতায় ফেরে বাংলাদেশ। মারিয়া মান্ডার কাছ থেকে বল পেয়ে সাবিনা খাতুন বাড়ান ডান দিকে থাকা সিরাত জাহান স্বপ্নাকে। দুরূহ কোণ থেকে লক্ষ্যভেদ করেন সেমি-ফাইনালে মালদ্বীপের জালে হ্যাটট্রিক করা এই ফরোয়ার্ড।
দ্বিতীয়ার্ধে বাংলাদেশের রক্ষণে চাপ ধরে রাখা ভারত ৬২তম মিনিটে আবারও এগিয়ে যায়। ডি-বক্সের মধ্যে বালাকে নার্গিস খাতুন ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। স্পট কিক থেকে অনায়াসে স্কোরলাইন ২-১ করেন সাসমিতা।

আগের তিন ম্যাচে পোস্টের নিচে অতন্দ্র প্রহরী হয়ে থাকা সাবিনা আক্তারের হাস্যকর ভুলে ম্যাচ থেকে ছিটকে পড়ে বাংলাদেশ। ডি-বক্সের বেশ বাইরে থেকে ইন্দুমতির শট শুরুতে গ্লাভসে নেওয়ার সহজ চেষ্টাটুকুও করেননি গোলরক্ষক। বল সামনে পড়ে লাফিয়ে সাবিনার হাত ছুঁয়ে জালে জড়ায়।

শেষ দিকে বালা, সাসমিতাদের প্রচেষ্টা ঠিকানা খুঁজে না পেলেও শিরোপা ধরে রাখার উৎসবে মাতে ভারত। স্বপ্ন ভাঙার বেদনায় নীল হয় বাংলাদেশ।

ভারতের কোচ সাজিদ ইউসুফ দার অবশ্য পেনাল্টি নিয়ে বাংলাদেশ কোচের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন, “আমরা সবসময় রেফারির সব সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করি।”

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত