শিরোনাম

আবাহনী ও শেখ জামালের জয়

প্রিন্ট সংস্করণ॥ক্রীড়া প্রতিবেদক  |  ০৮:২২, মার্চ ১৫, ২০১৯

আবাহনীর বিপক্ষে ব্রাদার্স ইউনিয়নের জয়ের জন্য মাত্র ২৩৭ রানের টার্গেট ছিলো। কিন্তু সেটা ছুঁতে পারলো না ব্রাদার্স। মাশরাফিরা ছুঁতে দিলেন না। যদিও সতীর্থদের ব্যর্থতার পর ব্যাট হাতে একাই লড়েছিলেন ইয়াসির আলী রাব্বি। ১১২ বল খেলে অপরাজিত ছিলেন ১০৬ রানে। তাতেও শেষ রক্ষা হলো না। আবাহনী বোলারদের কৌশলী ডেলিভারিতে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৮ উইকেটে সাকুল্যে ২২২ রানের সংগ্রহ পায় ব্রাদার্স। তাতে ১৪ রানের জয় পায় আবাহনী। চলতি মৌসুমে এটি তাদের টানা তৃতীয় জয়। মাশরাফি এই আসরে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলেন।গতকাল মিরপুর স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের ৪৫ বলে ৫৯, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ৯৫ বলে ৫৪, নাজমুল হোসেন শান্তর ৭২ বলে ৪৪ ও মাশরাফির ১৫ বলে ২৬ রানে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ২৩৬ রানের মামুলি সংগ্রহ পায় আবাহনী লিমিটেড। ব্রাদার্সের হয়ে বল হাতে মেহেদি হাসান, নাইম ইসলাম জুনিয়র ২টি করে এবং চিরাগ জনি ও শরিফুল্লাহ নিয়েছেন ১টি করে উইকেট। জয়ের জন্য ২৩৭ রানের সহজ লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। ৩২ রান তুলতে হারায় টপ অর্ডারের ৩ ব্যাটসম্যানকে। যা শেষ পর্যন্ত কাটিয়ে উঠতে পারেনি। একমাত্র ইয়াসির আলী রাব্বির সেঞ্চুরিটি বাদ দিলে উল্লেখ করার মতো সংগ্রহ স্কোরবোর্ডে যোগ করতে পারেননি ব্রাদার্স ব্যাটসম্যানরা। এদিকে, ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন লিগে নিজেদের প্রথম দুই ম্যাচেই হেরেছে শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাব ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। গতকাল ফতুল্লায় নিজেদের তৃতীয় মাঠে নেমেছে দু’দল। এই ম্যাচে শাইনপুকুরকে ১২ রানে হারিয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। কাল ম্যাচে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন শাইনপুকুর দলের অধিনায়ক আফিফ হোসেন। টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে ৩৫.১ ওভারে ১০৬ রান তুলতেই সবকটি উইকেট হারায় শেখ জামাল।অথচ এই শেখ জামালই এবারের ডিপিএল টি-টোয়েন্টির চ্যাম্পিয়ন দল। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪১ রান করেন জিয়াউর রহমান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত