শিরোনাম

পুলিশকে ম্যানেজ করেই নতুন কৌশলে মাদক ব্যবসা

প্রিন্ট সংস্করণ॥আব্দুল লতিফ রানা  |  ০০:০৭, মে ২৫, ২০১৮

রাজধানীর পুরান ঢাকার মাদক ব্যবসায়ীরা পুরাতন কৌশল বাদ দিয়ে নতুন কৌশলে ইয়াবা ও হেরোইন সরবরাহ করছে। বিদেশি বিভিন্ন নামিদামি ব্র্যান্ডের রংয়ের প্যাকেট চকমাটি দিয়ে রং তৈরি করে প্যাকেটজাত করে বাজারে সরবরাহ করে আসছে। এখন ওই সব ভেজাল রং তৈরির কারখানার কর্মচারীদের সহযোগিতায় রংয়ের প্যাকেট বা ডিব্বার ভেতরে ইয়াবাসহ মাদক এক জায়গা থেকে অন্য জায়গা পাইকারী দরে সরবরাহ করা হচ্ছে বলে চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে। রং ব্যবসায়ীদের এক নেতা এসব অবৈধ ব্যবসার পরিচালনার কথা অকপটে স্বীকার করে বলেন,পুলিশকে ম্যানেজ করতে টাকার প্রয়োজন।পুলিশ রংয়ের প্যাকেট বা ডিব্বা সরবরাহকারী গাড়ি টাকা করে শুধু মাত্র টাকার জন্য।প্রকৃত পক্ষে ভেজাল বা নকল হিসেবে নয়।এজন্য ব্যবসায়ীদের চাঁদার টাকা দিয়েই পুলিশকে ম্যানেজ করতে হয়।আর এই ভেজাল রং তৈরীর কারখানার মালিকদের কাছ থেকে স্থানীয় থানা পুলিশসহ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের ম্যানেজ করতে নিয়মিত চাঁদা তোলা হচ্ছে। সূত্র জানায়, শুধু মাত্র পুরান ঢাকার লালবাগের শহীদনগর,আমলীগোলা কিল্লারমোড় এলাকায় প্রায় সাড়ে ৪শ’ ভেজাল রং তৈরীর কারখানা ও ব্যবসায়ী রয়েছে।প্রতিমাসে এই ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে মোটা অংকের চাঁদা আদায় করা হয়ে থাকে।ভেজাল রং ব্যবসায়ীদের সভাপতি হিসেবে পরিচিত জনৈক মোশাররফ হোসেন পুলিশকে ম্যানেজ করতে প্রতিমাসে প্রায় ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা চাঁদা তুলছেন।ওই চাঁদার টাকা থেকে মাত্র স্থানীয় থানায় এক লাখ টাকা দেওয়া হচ্ছে।আর বাকি টাকা তিনি নিজেই গ্রাস করছেন বলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে ভেজাল রং ব্যবসায়ীদের একজন জানিয়েছেন। সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, লালবাগ এলাকার আলমঙ্গীল হাওলাদার, খালেক হাওলাদার, জামান মাদবর, মজিবুর মোল্লা, আলামীন, আবুল বাশার, লিটন মুন্সী, মোশাররফ, শাহালম মল্লিক, সুলতান চেয়ারম্যঅন, রিপন গাজী, জব্বর মুন্সী, মিন্টু হাওলাদার, মোহন কোত্তাল, নুরু বেপারী।শহীদনগর এলাকায় রয়েছে, রাজু, শামছু, কুদ্দুস, মাসুম, সাজ্জু, মজিবর মল্লিক, আক্কাস, লুতু সরকার , শফিক সরদার, মজিবুর মাদবর, রব মুন্সী, বেলায়েত, আলমগীর হাজী, রিপন মল্লিক, বাচ্চু, মিরাজ সরদার, শিপন সরদার, রহমান হাওলাদার।এছাড়া, দেলোয়ার মোল্লা, রাজন ওরফে রেডব্লাক, লোকমান, আজগর, মুসলিম, আলী হোসেন জামাই, মনির মুন্সী, হাকিম সরদার, বাবু, তাসের মাদবর, আয়নাল, আবুল মুন্সী, হযরত মাদবর, আক্কাস মুন্সী, হানিফ চকিদার, নুর আলম বেপারী, জহির, হাজী রব, আ্ক্কাস মল্লিক, জাহাঙ্গীর হাওলাদার ও সেলিম। এসব ভেজাল রংয়ের ব্যবসায়ীরা র‌্যাব-পুলিশের মাদক বিরোধী অঅভিযান শুরুর পর কৌশল অবলম্ভন শুরু করেছে তাদের ব্যবসা চালিয়ে আসছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত