শিরোনাম

স্বাধীনতাবিরোধীদের ত্যাগ করুন, বিএনপিকে আব্দুর রহমান

প্রিন্ট সংস্করণ॥রফিকুল ইসলাম  |  ১৮:৫৬, জুলাই ১১, ২০১৯

যে কোনো ইস্যু সৃষ্টির মাধ্যমে সরকারের সমালোচনা না করে স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে ত্যাগ করে বিএনপিকে গণতান্ত্রিক রাজনীতির চর্চা করার পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান।

তিনি বলেন, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি করে আজ অন্ধকারে হারিয়ে যাচ্ছে। তাদের উচিত স্বাধীনতাবিরোধী শক্তিকে ছেড়ে দিয়ে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি এবং মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসীদের সাথে নিয়ে রাজনীতি করা। দৈনিক আমার সংবাদের সাথে একান্ত আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আব্দুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের সকল মানুষ গণতান্ত্রিক ও মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী। তাই বিএনপির উচিত যুদ্ধাপরাধীদের সঙ্গ ত্যাগ করে অশুভ রাজনীতি থেকে সরে আসা।

আ.লীগের জাতীয় সম্মেলনে চমক থাকবে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল।

তার নেতৃত্বকে দেশের সাধারণ মানুষ ভালোবাসে। আজ আওয়ামী লীগের সকল নেতাকর্মীই ঐক্যবদ্ধ। তিনি দেশ ও দলের জন্য বিগত দিনে যা করেছেন, সবগুলোতে চমক ছিলো। আশা করি, তিনি আরো ভালো চমক জাতীয় সম্মেলনে দেবেন।

তিনি বলেন, আজ যারা আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত, সবাই ছাত্র রাজনীতি থেকে শুরু করে এখন পর্যন্ত দলের জন্য অনেক ত্যাগ-তিতিক্ষা করে ঐক্যবদ্ধ রাজনীতি করছেন।

সেই সকল নেতাদের কোথাও না কোথাও জায়গা তৈরি করে দেয়া উচিত। যারা তুলনামূলকভাবে কর্মঠ, পরীক্ষিত তাদেরই দলে অন্তর্ভুক্ত করা দরকার। এটা দলীয় প্রধান নিশ্চয়ই বিবেচনায় রাখবেন বলে আমি মনে করি।

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তি পালন করা আ.লীগের জন্য কতটুকু চ্যালেঞ্জ, এমন প্রশ্নের জবাবে আ.লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, সাংগঠনিকভাবে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী পালন করা হবে। কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে ওই অনুষ্ঠানে একত্র করা হবে।

বঙ্গবন্ধুর জীবনের উল্লেখযোগ্য— রাজনৈতিক জীবন থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত যতগুলো স্তর রয়েছে; সেগুলোকে পর্যায়ক্রমে তুলে ধরা হবে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু সারা জীবন সাধারণ মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করেছেন।

তার চিন্তা-চেতনা ছিলো ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়া। আজকে তার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তা বাস্তবায়ন হচ্ছে। তাই বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তি পালন করা আ.লীগের জন্য কোনো চ্যালেঞ্জ নয়।

এক প্রশ্নের জবাবে আব্দুর রহমান বলেন, প্রতিটি দলের একটি রাজনৈতিক অঙ্গীকার থাকে। সেই দিক থেকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক রাজনৈতিক চিন্তা-চেতনা আ.লীগের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা হূদয়ে ধারণ করেন এবং রাজনীতি করেন।

কিন্তু ব্যক্তিস্বার্থের জন্য দলের নেতাকর্মীদের উপর আঘাত করবেন, নৌকার বিরোধিতা করে পার পেয়ে যাবেন, এটা কখনো হতে পারে না। আওয়ামী লীগ সেই নেতাকে কোনো দিন ক্ষমা করবে না।

নৌকা ও তৃণমূলে ত্যাগী নেতাদের বিরোধিতাকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলেও তিনি জানান ।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত