শিরোনাম

ফটকি নদীর অবৈধ আড়বাঁধ উচ্ছেদ মৎস্যজীবীদের মাঝে স্বস্তি

প্রিন্ট সংস্করণ॥শালিখা (মাগুরা) সংবাদদাতা  |  ০২:০১, জুলাই ১২, ২০১৮

মাগুরার শালিখা উপজেলার উত্তর পাশ  দিয়ে বয়ে যাওয়া এক কালের ঐতিহ্যবাহী খর¯্রােতা ফটকি নদীতে অবৈধ ভাবে আড়বাঁধ ও সুতারজাল দিয়ে রেনু পোনা জাতীয় মাছ ধ্বংস করে আসছিলো উপজেলার গজদূর্বা গ্রামের  ইউপি সদস্য  মাছ খেকো দাউদ মন্ডল ও ছানি আড়পাড়া গ্রামের মেম্বর বাবলু মোল্যা ও প্রভাবশালী হাসানসহ কয়েকজন ব্যক্তি। এমন অভিযোগের  ভিত্তিত্বে গত কয়েক দিন আগে উপজেলা নির্বাহি অফিসার ও নির্বাহি  ম্যাজিষ্ট্রেট  সুমী  মজুমদার ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে  মেম্বর দাউদ মন্ডলের আড়বাঁধটি উচ্ছেদ করেন। কিন্তু প্রভাবশালী  দাউদ মন্ডল, মেম্বর  বাবলু মোল্যা ও হাসানসহ  কয়েকজন ব্যক্তি আইনের তোয়াক্কা  না করে ক্ষমতার সীমাহীন দাপটে পুনরায় আবারও নদীতে বাঁশ, খুটি, চাঁন ও সুতার জাল দিয়ে মা মাছসহ বিভিন্ন দেশীয় জাতীয় রেনু পোনা মাছ নিধণ করছিলো। এ ঘটনায় এলাকার মৎস্যজীবিসহ গ্রামের কয়েকজন সচেতন  ব্যক্তি অভিযোগ করলে সাংবাদিকরা বিভিন্ন জাতীয় ও স্থানীয় পত্র পত্রিকায় অবৈধ আড়বাঁধ  উচ্ছেদ নিয়ে সংবাদ পরিবেশন করেন। পত্রিকায় সংবাদ পরিবেশন হলে উপজেলা প্রশাসনের টনক নড়ে। এরপর গতকাল উপজেলা নির্বাহি অফিসারের নির্দেশে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ গোলাম রসুল উপজেলার গজদূর্বা, ছানি আড়পাড়া ও লক্ষিপুর এলাকায় ফটকি নদীতে অভিযান চালিয়ে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে নদী থেকে ৫টি অবৈধ আড়বাঁধ ও সুতের জাল উচ্ছেদ  করেন। এতে সাধারণ মৎস্যজীবিসহ এলাকার সচেতন ব্যক্তিদের মাঝে আপাতত স্বস্তি  ফিরে এসেছে  বলে জানা যায়।  

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত