শিরোনাম

‘বিষ নিয়ে আইছি, বিয়ে না করলে আত্মহত্যা করুম’

বগুড়া প্রতিনিধি  |  ১৯:১২, মে ০৪, ২০১৮

বগুড়ার ধুনট উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের নারায়নপুর গ্রামে বিয়ের দাবীতে প্রেমিকের বাড়িতে অনশন করছেন শারমিন আকতার শামীমা (১৯) নামের এক তরুণী। ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি এসে বৃহস্পতিবার (০৩মে) রাত ৮টায় প্রেমিক মোমিনের বাড়িতে বিয়ের দাবীতে অনশন করছে। এ ঘটনা জানার পর প্রেমিক মোমিন আত্মগোপনে রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নারায়নপুর গ্রামের শাহজাহান আলীর মেয়ে শারমিন আকতার শামীমার (১৯) সঙ্গে প্রতিবেশী ওসমান গনির ছেলে আলমগীর হোসেন মোমিনের (২০) প্রায় ৩ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। প্রেমিকযুগল ঢাকার হেমায়েতপুর এলাকায় একটি পোশাক কারখানায় চাকরী নেয়। সেখানে অর্জেন্টপাড়ায় একই মালিকের বাসা ভাড়া নিয়ে পাশাপাশি কক্ষে রাতযাপন করে প্রেমিকযুগোল।

একই বাসায় অবস্থানের সুযোগে তাদের প্রেমের সম্পর্ক এক পর্যায়ে দৈহিক সম্পর্কে রুপ নেয়। প্রায়ই মোমিনকে বিয়ের কথা বলে শারমিন। মোমিনও তার কথায় আশ্বাস দিয়ে চুটিয়ে প্রেম চালাতে থাকে। এভাবে তিন বছর গড়িয়ে গেলেও মোমিন বিয়েতে রাজী হয় না। দুই মাস আগে প্রেমের সম্পর্কের কথা অস্বীকার করে মোমিন।

এ বিষয়টি মোমিনের অভিভাবকদের জানানোর পরও কোনো বিচার পায়নি শারমিন। ফলে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়ি এসে বৃহস্পতিবার (০৩মে) রাত ৮টায় মোমিনের বাড়িতে বিয়ের দাবীতে অনশন করছে। এ ঘটনা জানার পর প্রেমিক মোমিন আত্মগোপনে রয়েছে।

এ বিষয়ে শারমিন আকতার শামীমা জানায়, বিয়ের প্রলোভনে প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রেমিক মোমিন আমার সব কিছু নষ্ট করে দিছে। এখন সব সম্পর্ক অস্বীকার করায় বিয়ের দাবীতে অনশন করতাছি। আমাকে বাড়ি থেকে বিতাড়িত করতে প্রেমিকের স্বজনরা নানাভাবে নির্যাতন করতাছে। তারপরও স্ত্রীর মর্যাদা দিতে হইব। বিষ নিয়ে আইছি, যদি বিয়ে না করে তাহলে তার বাড়িতে আত্মহত্যা করুম।

মোমিনের চাচা আহসান হাবীব বলেন, এ বিষয়টি আমরা আগে জানি না। মেয়েটি বাড়িতে আসার পর ঘটনাটি সমঝোতার চেষ্টা করা হচ্ছে।

উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হাসান আহম্মেদ জেমস মল্লিক এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, উভয় পক্ষের অভিভাবকদের সাথে আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিমাংসার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত