শিরোনাম

ডিএনসিসির মেয়রের আশ্বাসে ২৮ মার্চ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের আন্দোলন স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৭:৪২, মার্চ ২০, ২০১৯

 

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলামের আশ্বাসের ওপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীরা ২৮ মার্চ পর্যন্ত সড়কে আন্দোলন স্থগিত করেছে। তবে নির্দিষ্ট সময়ে শিক্ষার্থীদের দেয়া আশ্বাস বাস্তবায়ন না হলে ২৮ মার্চ সকাল ১১টায় ডিএনসিসিতে বৈঠক শেষে ফের আন্দোলনে নামবে শিক্ষার্থীরা।

বুধবার (১৮মার্চ) ডিএনসিসির মেয়রের সঙ্গে বৈঠক শেষে এ সিদ্ধান্ত জানান বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) আইন বিভাগের শিক্ষার্থী তাওহিদুজ্জামান।

বিইউপির শিক্ষার্থী তাওহিদুজ্জামান বলেন, আমাদের যেসব দাবি ছিল সেগুলো সময় সাপেক্ষে মেয়র মেনে নিয়েছেন। যে তিনটি দাবি ফোকাসিং ছিল তার মধ্যে রয়েছে, আইন প্রক্রিয়ার মধ্যে যত দ্রুত সম্ভব (সর্বোচ্চ ৩০ দিন) আবরারের দুর্ঘটনার চার্জশিট দাখিল করতে হবে, পাশাপাশি আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।

সু-প্রভাত এবং জাবালে নূর বাসের সমস্ত রুট পারমিট বাতিল করতে হবে। জেব্রা ক্রসিং, বাস স্টপেজ ও ফুটওভার ব্রিজ যেখানে দরকার সেখানে তা নিশ্চিতের জন্য ৭ দিনের মধ্যে পরিকল্পনা নিতে হবে। এসব প্রতিশ্রুতির শর্তে আমরা ২৮ মার্চ পর্যন্ত আন্দোলন স্থগতি করেছি। ২৮ মার্চ আবার আমরা মেয়রের সঙ্গে বসবো এবং কাজের অগ্রগতি জানবো। কাজের অগ্রগতি দেখে যদি সন্তুষ্ট না হয় তাহলে ২৮ মার্চ থেকে আবারও আমরা আন্দোলনে যাবো। আমরা নিরাপদ সড়ক চাই, নিরাপদ বাংলাদেশ চাই।

ডিএনসিসির মেয়র বলেন, শিক্ষার্থীদের সব দাবিই যৌক্তিক। এগুলো আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বাস্তবায়নের জন্য যথাসম্ভব চেষ্টা করবেন তিনি।

শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে একমত পোষন করে আতিকুল ইসলাম বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবির মুখে ঘটনাস্থলে গিয়েছি- সেখানে তড়িৎ গতিতে ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছি। এটি কারও কাছেই কাম্য নয়, একজন ছাত্র বেপরোয়া বাস চালকের হাতে মারা যাক। ৪টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি মিলে বেশকিছু সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বিআরটিএ’র চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ’র সঙ্গে কথা হয়েছে।

সেখানে যেসব এ্যাকশন নেয়া হয়েছে তা হচ্ছে, সুপ্রভাত বাস চালক আটক ও এই কোম্পানির সকল বাস স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। এরসঙ্গে জাবালে নূর বাসগুলোর স্থগিত করতে নির্দেশনা দিয়েছি। ঘটনাস্থলে ফুটওভার ব্রিজের ভিত্তিস্থাপন যা দুই মাসের মধ্যে নির্মাণ হবে।

ডিএনসিসি সিদ্ধান্ত নিয়েছে- ঢাকা শহরে জিব্রাক্রোসিং, আন্ডারপাস, যাত্রী ছাউনি, স্প্রিড ব্রেকারসহ ইত্যাদি আগামী ৭ দিনের কার্যদিবসের মধ্যে সম্ভাব্য যাচাই-বাছাই করে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা পেশ করবো। এটি ডিএনসিসি, ডিএসসিসি এবং ডিএমপিসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে কাজ করবো। এবং ৭ দিনের মধ্যে এসব কাজ যেন দৃশ্যমান হয় সেজন্য ইতোমধ্যে নির্দেশনা দেন মেয়র।
স্টুডেন্ট কাউন্সিল গঠন প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, আমরা কাদের সঙ্গে আলোচনা করবো, এজন্য প্রত্যেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে দুজন করে শিক্ষার্থীকে নিয়ে একটি স্টুডেন্ট কাউন্সিল গঠন করবো। এর মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের কথা জানতে পারবো। এতে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে পারবো। যা আগামী ২৮ মার্চের মধ্যে স্টুডেন্ট কাউন্সিল গঠন করে একটি ফলোআপ করবেন।

মামলার ব্যাপারে দেশের প্রচলিত আইন রয়েছে। এরপরও পুলিশ কমিশনার এখানে উপস্থিত আছেন। এবং পুলিশের ঊদ্ধর্তন কর্মকর্তারা আমাকে কথা দিয়েছেন, আগামী ৩০ দিনের মধ্যে মামলার চার্জশিট দাখিল করতে হবে। পাশাপাশি সর্বোচ্চ সাজা নিশ্চিত করতে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

লাইসেন্সবিহীন ও ফিটনেসবিহীন কোনো গাড়ি ঢাকায় চলতে পারবে না। এজন্য যথাযথ আইনানুক ব্যবস্থা নিতে ডিএমপি পুলিশ কমিশনারকে অনুরোধ জানিয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, আমরা একটি সুন্দর ঢাকা দেখতে চাই, মৃত্যু কারও জন্য কাম্য নয়। আমরাও শিক্ষার্থীর কথার সম্মান রেখে বলতে চাই, উই ওয়ান্ট জাস্টিস’।

বৈঠকে বিইউপিসহ চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, বিইউপি ভিসি মেজর জেনারেল এমদাদ উল বারীসহ পরিবহন সংশ্লিষ্টরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) সকালে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন প্রগতি সরণি এলাকায় সু-প্রভাত (ঢাকা-মেট্রো-ব-১১-৪১৩৫) বাসের চাপায় বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) শিক্ষার্থী আবরার আহাম্মেদ চৌধুরী নিহত হন। 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত