শিরোনাম

চাঁদ দেখা যায়নি, ঈদ হবে বৃহস্পতিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ২০:৪৪, জুন ০৪, ২০১৯

বাংলাদেশের আকাশে আজ মঙ্গলবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। আগামীকাল বুধবার রমজান মাস ৩০ দিন পূর্ণ করবে। পরদিন বৃহস্পতিবার শাওয়াল মাস শুরু হবে এবং পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপন করা হবে।

এক মাস সিয়ামসাধনা শেষে মানুষ ঈদ উৎসবে অংশ নিতে উদগ্রীব হয়ে ছিল। উৎসবে অংশ নিতে যে যার সাধ্যমতো কেনাকাটাও করছে। প্রিয়জনকে ঈদ উপহার দিচ্ছে। রাজধানী ফাঁকা হতে শুরু করেছে। ঈদ আনন্দে শরিক হতে ঢাকা ছেড়ে যাচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। প্রিয় মানুষের সঙ্গে একটু দেখা-সাক্ষাৎ, কুশলবিনিময়, পারস্পরিক সহমর্মিতা প্রকাশ করতে ঘরে ফেরার ভোগান্তির কথা মুহূর্তেই ভুলিয়ে দিচ্ছে। মানুষ এখন উন্মুখ হয়ে আছে সেই ধর্মীয় উৎসবে অংশ নেওয়ার জন্য।

পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা এইচ এম এরশাদ। এ ছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের পক্ষ থেকে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় সংগঠনের পক্ষ থেকেও বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।

আজ রাতে বায়তুল মোকাররম মসজিদের সভাকক্ষে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জানানো হয়, বাংলাদেশের আকাশে কোথাও পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। আগামীকাল বুধবার পবিত্র রমজান মাস ৩০ দিন পূর্ণ করবে। পরদিন বৃহস্পতিবার থেকে শাওয়াল মাস শুরু হবে এবং ওই দিন পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে। সভায় সভাপতিত্ব করেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ও চাঁদ দেখা কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট শেখ মো. আব্দুল্লাহ। 

জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে দেশের প্রধান ঈদ জামাত সকাল সাড়ে ৮টায় অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, ঈদের প্রধান জামাতের নামাজে ইমামতি করবেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে রাষ্ট্রপতি, মন্ত্রী, প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্ট ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতিরা, বিদেশি কূটনীতিক, রাষ্ট্রের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিসহ সাধারণ মুসল্লিরা নামাজ আদায় করবেন।

প্রতিবারের মতো এবারও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ঈদের পাঁচটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রথম জামাত সকাল ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত সকাল ৮টায়, তৃতীয় জামাত সকাল ৯টায়, চতুর্থ জামাত সকাল ১০টায় এবং পঞ্চম ও সর্বশেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে।

ঈদুল ফিতরের নামাজের আগে মুসলমানদের অবশ্যই ফিতরা আদায় করার বিধান রয়েছে। এই বিধান মেনে এবারও ইসলামিক ফাউন্ডেশন সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ ফিতরার হার নির্ধারণ করে। এবার জনপ্রতি সর্বনিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করা হয়েছে ৭০ টাকা। সর্বোচ্চ ফিতরার এই হার ধরা হয়েছে এক হাজার ৯৮০ টাকা। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, যে কেউ ইচ্ছা করলে সর্বনিম্ন ৭০ টাকা থেকে শুরু করে এক হাজার ৯৮০ টাকা পর্যন্ত ফিতরা প্রদান করতে পারবেন।

 
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত