শিরোনাম

মালয়েশিয়ায় কঠোর হচ্ছে অভিবাসন নীতি

শেখ সেকেন্দার আলী, মালয়েশিয়া থেকে  |  ১২:১১, আগস্ট ০১, ২০১৮

কঠোর থেকে আরো কঠোরতম অবস্থানে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন বিভাগ ও সরকার। অবৈধ শ্রমিক এবং অভিবাসীরা কিভাবে এখানে ব্যবসা করছে তা খতিয়ে দেখতে এবার ভিন্ন অভিযান চালাবে ইমিগ্রেশন বিভাগ। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় ফলাওভাবে প্রচারিত বিদেশিদের কারণে মালয়েশিয়ানদের ব্যবসা-বাণিজ্য করার উপায় নেই।

প্রবাসীরা কাজের সন্ধানে এসে মালয়েশিয়ান নাগরিকের নামে ব্যবসার রেজিস্ট্রেশন করে মাসিক এক থেকে দুই হাজার মালয় রিংগিত এর বিনিময়ে বিভিন্ন দেশের শ্রমিকরা ব্যবসা পরিচালনা করছে। আর এসব অভিযোগের ভিত্তিতেই এবার বিদেশি শ্রমিক পরিচালিত মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অভিযান পরিচালনা করবে মালয়েশিয়া অভিবাসন বিভাগ।

স্থানীয় একটি সংবাদ মাধ্যমের সাক্ষাৎকারে এমনটি জানালেন অভিবাসন বিভাগের মহাপরিচালক দাতো সেরি মোস্তফার আলী।

অভিযানের কারণ সম্পর্কে মোস্তফার আলী জানান, বিদেশি শ্রমিকরা মালয়েশিয়ায় বিভিন্ন ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান খুলে অবৈধ কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছে, জাল পাসপোর্ট, ভিসা ইস্টিকার সহ বিভিন্ন আইন বিরোধী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে।

এছাড়াও মালয়েশিয়ানরা বিভিন্ন সময় অভিযোগ করে আসছে, এদেশ আমাদের তাহলে কেন বিদেশিরা আমাদের দেশে ব্যবসা-বাণিজ্য করবে। আজ আমরা (মালয়েশিয়ানরা ) পরের জায়গায় চাকরি করব আর বিদেশের শ্রমিকরা আমাদের দেশে মালিকের মত ব্যবসা-বাণিজ্য করবে এটা মেনে নেওয়া যায়না এগুলো বন্ধ করতে হবে।

আর এসব অভিযোগের কারণে এবার মালয়েশিয়া অভিবাসন বিভাগের টার্গেটে পরিণত হয়েছে বিদেশি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। বিশেষ করে বাংলাদেশিরা মালয়েশিয়ার বিভিন্ন প্রান্তরে মুদি দোকান ও টেইলার্সের দোকান চোখে পড়ার মতো। ইতিমধ্যে মালয়েশিয়ায় কয়েকটি বাংলাদেশী দোকানের ভিডিও ধারণ করে তা বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করায় কয়েকটি দোকান ইতিমধ্যেই বন্ধ করে দেয়া হয়েছে এবং ঐসব বাংলাদেশিদের থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তবে অন্যান্য দেশের শ্রমিকদের বেলায় কোন অভিযোগ না থাকলেও বাংলাদেশীদের জুড়ে রয়েছে হাজারো অভিযোগ। মালয়েশিয়া জুড়ে অভিবাসী ব্যবসায়ীদের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে এবং তালিকার পরপরই একজন অভিযান পরিচালিত হবে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। শুধু ব্যবসায়ীদের নয় বরং তাদের লাইসেন্স দ্য তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে।

আর এস অভিযোগের ভিত্তিতেই এবার আটঘাট বেঁধেই অবৈধ অভিবাসী বিরোধী অভিযান সঙ্গে অবৈধ বিদেশি ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে যাচ্ছে মালয়শিয়া অভিবাসন বিভাগ।

সম্প্রতি এমন অভিযোগের সত্যতা পেয়ে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বহু বাংলাদেশী ব্যবসায়ী এবং ব্যবসায়ী কেন্দ্র থেকে উদ্ধার করা হয় অবৈধ কাজে ব্যবহৃত ভিসা তৈরির মেশিন, ভুয়া পাসপোর্ট।

অধিকাংশ গ্রেপ্তারকৃতদের বৈধ ব্যবসা করার ভিসা না থাকলেও তারা দিব্যি দোকান খুলে ব্যবসা পরিচালনা করছে। যার কারণে বৈধ ব্যবসায়ীদের ও হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে।

মোস্তফার আলী আরো জানান, এটা সম্পূর্ণ মালয়েশিয়া অভিবাসন আইন অমান্য যা কাম্য নয়। যারা কাজের ভিসায় এসে অবৈধভাবে ব্যবসা বাণিজ্য পরিচালনা করছে এবং তাদের লাইসেন্স দেওয়া তাদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না তাদেরকে কঠোর আইনের মুখোমুখি হতে হবে। ইতিমধ্যে ছয়শত মালয়েশিয়ার নাগরিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত