শিরোনাম

মালয়েশিয়ায় দুই দিনে ২৫৫ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার

শেখ সেকেন্দার আলী, মালয়েশিয়া থেকে  |  ১২:২৪, জুলাই ০৭, ২০১৮

মালয়েশিয়ায় মেগা থ্রির দুই দিনের অভিযানে ২৫৫ জন বাংলাদেশিসহ ৫০০ অবৈধ অভিবাসীদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) থেকে গতকাল শুক্রবার (৬ জুলাই) মালয়েশিয়ার অভিবাসন বিভাগের দেশ জুড়ে অভিযানে ২৫৫ জন বাংলাদেশি, ৩০০ ইন্দোনেশিয়া, মায়ানমার ও অন্যান্য দেশের নাগরিক গ্রেপ্তার হয়।

গতকাল জালাল মুন্সি আব্দুল্লাহ সেলাংগার অভিজাত শপিংমল জেকেল, কেলানতান জেলার কুয়ালাকেরায়, ইপো জেলার মেরুসহ অন্যান্য জায়গায় অভিযান চালায় অভিবাসন বিভাগ।

গ্রেপ্তার করা হয় মিনি মার্কেটের এক বাংলাদেশি মালিক সহ ৮৫ টি পাসপোর্ট আটক করে, যা এযাবৎকালের বাংলাদেশিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ সবচেয়ে ভয়াবহ। বিভিন্ন অবৈধ কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েছে বাংলাদেশের একশ্রেণীর অসাধু ব্যক্তি। গুটিকয়েক বাংলাদেশিদের কারণেই সমস্ত বাংলাদেশিদের অপবাদ সহ্য করতে হচ্ছে। বিলুপ্ত হতে চলেছে মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিদের অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল সুনাম। গত ২৭ জুন ভুয়া পাসপোর্ট ও ৫টি মেশিনসহ এক বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়। আর এসব কারণেই ইমেজ সংকটে পড়েছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা।অধিকাংশ মালাইদের অভিযোগ বাংলাদেশি জুড়ে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধকরণ প্রক্রিয়া। এরপর ১৬ সালের ১৫ আগস্ট নিবন্ধনের মেয়াদ বাড়িয়ে ২০১৭ সালের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হয়। পরবর্তীতে ২০১৮ সালের ১ জানুয়ারি থেকে সর্বশেষ সময় বাড়িয়ে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত চলে নিবন্ধন প্রক্রিয়া। এ প্রক্রিয়া শেষ হতে না হতেই অবৈধদের জন্য ব্যাপক অনুসন্ধান শুরু করে ইমিগ্রেশন বিভাগ। ৩০ আগস্টের মধ্যে স্বেচ্ছায় দেশে ফেরত না গেলে জেল জরিমানার বিধান রয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট বিভাগ জানিয়েছে। মোস্তাফার আলী জানান, অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে ব্যাপক অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এছাড়া যেসব মালিকরা অবৈধ অভিবাসীদের নিয়োগ দিয়েছেন বা পুনঃনিবন্ধন করায়নি তাদেরকেও গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসা হবে। তিনি বলেন, দেশে অবৈধ অভিবাসীর স্রোত ঠেকাতে এই পদক্ষেপ নিতেই হচ্ছে। এ সময় ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক আরও জানান, গত জানুয়ারির ১ তারিখ থেকে জুনের ৩০ তারিখ পর্যন্ত মোট ১৯ হাজার ৯৭৯ জন বিদেশি অভিবাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তিনি বলেন, এ পর্যন্ত ৫৩৬ জন মালিকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়াও ৯ হাজার ৮৫৮ জন অবৈধ অভিবাসীকে বিচারের সম্মুখীন করা হয়েছে।

বাকিদেরও শিগগিরই বিচার প্রক্রিয়া শুরু হবে। তিনি জানান, গ্রেপ্তার হওয়া অভিবাসীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি রয়েছেন ইন্দোনেশিয়ান। প্রতিবেশী এই দেশটির ৬ হাজার ৮৯৫ জন অবৈধ অভিবাসীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এরপরই রয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার দেশ বাংলাদেশ। ৬ মাসে ৩ হাজার ৯৭৫ জন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ১ হাজার ৯৯৫ জন মিয়ানমারের নাগরিক। দিন দিন বাড়ছে বাংলাদেশিদের সংখ্যা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত