শিরোনাম

জনসভা স্থগিত, ১৭ ডিসেম্বর ইশতেহার

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৮:৫২, ডিসেম্বর ০৬, ২০১৮

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পূর্বনির্ধারিত ১০ ডিসেম্বরের জনসভা নির্বাচনের কারণে স্থগিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জোটটির মুখপাত্র ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি জানান নির্বাচনের আগে শেষ মুহূর্তে রাজধানীতে এ জনসভাটি করা হবে । ফখরুল আরো জানান, আগামী ১৭ ডিসেম্বর জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার ঘোষণা করা হবে। যদিও ৮ তারিখে ইশতেহার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার ৮টায় রাজধানীর মতিঝিলস্থ ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে ঐক্যফ্রন্টের বৈঠকের শেষে সাংবাদিকদের তিনি একথা জানান। মির্জা ফখরুল বলেন, গণহারে মনোনয়ন পত্র বাতিল ও প্রতীক বরাদ্দের বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। প্রতীক নিয়ে যাতে জনগণের সামনে হাজির হওয়া যায়, প্রতিটি জেলায় জেলায় এ প্রোগ্রামগুলো যাতে চালু রাখা যায়, এ বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়াও ঐক্যফ্রন্টের জনসভার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি। আসন ভাগাভাগি ও প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, এ ব্যাপারে এখনো আলোচনা চলছে আমাদের। পরবর্তীতে এবিষয়ে জানানো হবে।বৈঠকে উপস্থিত থাকা ঐক্যফ্রন্ট সূত্র আমার সংবাদকে জানিয়েছেন , জনসভাটিকে কেন্দ্র করে ঐক্যফ্রন্টের আন্দোলনের টার্গেট আছে। প্রার্থী ঘোষণার পর যদি লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড না হয়, হামলা মামলা ভয়ানক হারে বেড়ে যায় তাহলে সমাবেশ থেকে বৃহৎ অবস্থান কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে। বৈঠক শেষে আমার সংবাদের সাথে একান্ত আলাপে আমার সংবাদকে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড.জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেছেন, ড.কামাল সাহেবতো বলেছেন, সবাই আসো নির্বাচনে। যত রকম হয়রানি থাকুক। কেউ হয়রানির বাইরে নয়। যেমন আজকে আমাকেও সকাল দশটা থেকে দুইটা পর্যন্ত হয়রানি করছে পুলিশ। ইশতেহার বিষয়ে তিনি বলেন, আগামীকাল হয়তো চূড়ান্ত করা হবে তবে ঘোষণা হবে ১৭ তারিখে। আন্দোলন বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোনো কিছু যেন আমাদের ভোটে আসা না থামায়। মাঠে নামতে হবে কৌশলগত প্রস্তুতিও রাখতে হবে। এর আগে বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, ঐক্যফ্রন্টের আহবায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আসম আব্দুর রব, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা: জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসীন মন্টু, জেএসডি সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক রতন ও গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য অধ্যাপক আবদুল্লাহ আবু সাঈদ প্রমুখ।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত