শিরোনাম
চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের হিজলগাড়ী বাজারের কর্মী সমাবেশে জননেতা হাশেম রেজা

‘তারুণ্যের জোয়ারে নৌকা ভাসিয়ে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনকে উন্নয়নের শিখরে নিয়ে যাবো’

আজাদ হোসেন, চুয়াডাঙ্গা থেকে  |  ০০:৪৩, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮

তারুণ্যের জোয়ারে নৌকা ভাসিয়ে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনকে উন্নয়নের শিখরে নিয়ে যাবো। আমি দিবা-নিশী কেবলই এই স্বপ্নই দেখি।এলাকার অবহেলিত-বঞ্চিত মানুষের জীবনমানের উন্নয়ন এবং এ এলাকার সার্বিক উন্নয়নে আমি বিনীদ্র রজনী যাপন করে চলেছি প্রতিদিন।

বুধবার (১৯সেপ্টেম্বর) বিকালে চুয়াডাঙ্গা-২ আসনের চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার হিজলগাড়ী বাজারে অনুষ্ঠিত দলীয় কর্মী সমাবেশে এ আসনের দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রিয় কমিটির অন্যতম সহ-সম্পাদক, দেশের অন্যতম সেরা জাতীয় দৈনিক আমার সংবাদ’র সম্পাদক জননেতা হাশেম রেজা উপস্থিত দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে এ কথাগুলি বলেন।

তিনি আরও বলেন, আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগেই আমাদের চুয়াডাঙ্গার দুটি আসনের পুনর্বিজয়ের পরিবেশ তৈরী করতে হবে। এ আসনের বর্তমান সাংসদ জনগনের মাঝে বিভাজন সৃষ্ঠি করে দলের ক্ষতি করার জন্য এ জেলার দীর্ঘ অবহেলিত ও বঞ্চিত মানুষ আপনাকে বিপুল ভোটের মাধ্যমে মহান জাতীয় সংসদে পাঠাননি। ক্ষমতার শেষ সময়ে এসে হলেও এলাকার গরীব দুখী মানুষের জন্য কিছু করেন। জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুত উন্নয়নের সিকিভাগও আপনারা আমাদের এলাকাতে করে দেখাতে পারেননি। সামনে জাতীয় সংসদের একাদশ নির্বাচন মাত্র আর কয়েকমাস বাকি রয়েছে। সেই নির্বাচনে এখানকার জনগনকে কি জবাব দেবেন। চুয়াডাঙ্গার মানুষ আপনাদের কাছে আপনাদের কাজের হিসাব চায়।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত কর্মী সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন-চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার ১৪ দলের সমন্বয়ক ডা শরীফুল ইসলাম। বিশাল এ পথসভায় প্রধান অতিথীর বক্তৃতায় উদীয়মান তরুণ জনপ্রিয় নেতা হাশেম রেজা উপস্থিত সর্বস্তরের মানুষের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, এ এলাকার মানুষ অনেক আশা নিয়ে আমাদের দলের সাংসদকে নির্বাচিত করেছিলেন। কিন্তু এর মাত্র অল্প কয়েকদিন পরেই আমরা দেখলাম তার পক্ষ তেকে দলকে, দলের নেতা-কর্মীদেরকে ভাগ করে ফেলা হয়েছে।

তিনি চুয়াডাঙ্গার-২ আসনের সাংসদকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, আপনার কাছে বিনীত অনুরোধ এখনো সময় আছে, দলের বিভাজিত নেতা ও কর্মীদেরেকে এক কাতারে নিয়ে আসুন, নইলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সমুন্নত রাখতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার স্বপ্ন ভুলুন্ঠিত হবে, চলমান উন্নয়ন প্রক্রিয়া থেকে আমরা ছিটকে যাবো। সবক্ষেত্রে বর্তমান অগ্রযাত্রা ব্যাহত হবে। দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন সরকারের আমলে আমাদের দলের নেতা-কর্মীরা নির্যাতিত-নিপিড়ীত, মামলা-হামলায় জর্জরিত ছাড়াও খুন-গুমের শিকার হয়েছেন যেটা বর্ননার অতীত।

এটি উল্লেখ করে জননেতা হাশেম রেজা আরো বলেন, দুঃখ হয়, বঙ্গবন্ধুর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নের্তৃত্বে গণতান্ত্রীক সরকার এখন দেশ পরিচালনা করছে। এখন কেন আমার দলের নেতা-কর্র্মী মিথ্যা মামলায় কেন জেল খাটবে, কেন তারা নিজ দলের অভ্যন্তরীন কোন্দল আর নেতাদের নিজেদের স্বার্থের বলি হবে। এর জবাব কেউ দিতে পারবেন না আমি জানি, তার পরেও বলি সবাই নিজের থেকে দলের স্বার্থকে গুরুত্ব দিন। তা না হলে দল যদি আবার ক্ষমতায় না আসে, তাহলে কেউ ভাল থাকতে পারবেন না। গাড়ি-বাড়ি যে যা করেছেন, সব কোথায় চলে যাবে তার কোন হিসাব মিলাতে পারবেন না।

তিনি উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে আরো বলেন, ব্যাক্তি আক্রোশে আপনারা কেউ নৌকার বিপক্ষে যাবেন না। আপনাদেরকে ঐক্যবদ্ধভাবে নৌকায় ভোট দিয়ে পুনরায় জননেত্রী শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় আনতে হবে। কিছু নেতাকর্মী আজ ক্ষমতার লোভে দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করে বিভাজন তৈরি করছে। আপনাদের সবাইকে সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে। জননেত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে যে উন্নয়নের জোয়ার সৃষ্টি করেছে নেত্রী ছাড়া কারও পক্ষে এই ধারাবাহিকতা বজায় রাখা সম্ভব নয়।

জীবননগর উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শরীফুল ইসলাম মিন্টু’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মী সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-উথলী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা সরফরাজ উদ্দীন, আ.আলিম প্রমুখ।

এসময় উপস্থিত ছিলেন-দামুড়হুদা উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জানমহাম্মদ সেলিম, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, দামুড়হুদা উপজেলা যুবলীগের সাবেক যুগ্ন-সম্পাদক এসএম মহাসীন আলী, জাহাঙ্গীর আলম, মাসুদ বিল্লাহ মন্টু, জেলা মৎসজীবি লীগের সহ-সভাপতি সাংবাদিক মনিরুল ইসলাম, উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মলীগের সাধারন সম্পাদক হাসান আল-বাখার ডলার, সাংবাদিক জিল্লুর রহমান মধু , সালাহউদ্দীন, আব্দুল মজিদ, আন্দুলবাড়িয়ার যুবলীগ নেতা জাহিদুল ইসলাম, জীবননগরের যুবলীগ নেতা তরিকুল ইসলাম, রায়পুরের যুবলীগ নেতা শাহবুদ্দিন খান, তরিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা আবুল হাশেম, আরিফুল ইসলাম, সজিব, আলামিন, বিপুল, আলমগীর, ইয়াসিন, হাবিবুর রহমান হাবি, নুরুন্নবী, এইচএম হাকিম, লিটন, রিপন, রঞ্জু, রাসেল রিমু, বিল্লাল, সাজেদুর রহমান কাদের, শুভ, রঞ্জু প্রমুখ।

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত