শিরোনাম

সিইসিকে আরও সতর্ক হয়ে কথা বলতে হবে : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৭:০৯, আগস্ট ০৯, ২০১৮

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে (সিইসি) আরও সতর্ক হয়ে কথা বলতে হবে।

‘বাংলাদেশে শতভাগ সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠান সম্ভব নয়’—সিইসির এমন মন্তব্যের বিষয়ে বৃহস্পতিবার (০৯আগস্ট) সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তিনি প্রায়ই ভালো কথা বলেন। স্লিপ হতেই পারে। হয়তো স্লিপ হয়েছে। আমি আশা করি, তিনি ভবিষ্যতে এ ধরনের বক্তব্য প্রদান করবেন না।’

সেতুমন্ত্রী আজ কেরানীগঞ্জের ইকুরিয়া বিআরটিএ কার্যালয় পরিদর্শন করেন। এসময় নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে আসায় ব্যাপক জনসচেতনতা তৈরি হয়েছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। বিএনপি জনগণের মনের ভাষা পড়তে পারেনি বলেই তারা ১০ বছর ধরে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার বাইরে বলেও মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের।

সারাদেশে চলমান ট্রাফিক সপ্তাহের কার্যক্রম দেখতে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বৃহস্পতিবার রাজধানীর গুলিস্তান এলাকা পরিদর্শন করেন। বিভিন্ন গাড়ির চালকদের কাছে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আছে কি না, তা দেখেন।

এসময় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশনের (বিআরটিসি) একটি বাসের বিরুদ্ধে মামলা করার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন কাদের। এ সময় সাংবাদিকদের কাছে তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের ফলে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ে জনসচেতনতা বেড়েছে এবং তাদেরও কাজ করতে সুবিধা হচ্ছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মাঝেমধ্যে এ ধরনের চাপ না এলে আমাদের সচেতনতা বাড়ে না। এই চাপটার বড় প্রয়োজন ছিল।’ সরকারের বিরুদ্ধে যতই ষড়যন্ত্র করা হোক, জনগণকে সঙ্গে নিয়ে তা মোকাবিলা করা হবে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপিকে নিয়ে আওয়ামী লীগের কোনো মাথাব্যথা নেই।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, তাদের গন্তব্যের যে লক্ষ্যস্থল, সেটাই তারা খুঁজে পাচ্ছে না। তারা এখন দিশেহারা। কাজেই কখন কী যে বলে, কখন কী উদ্বেগ, কখন কী কথা তারা বলে এটা তারাও জানে না, তারাও বোঝে না। আরও পাঁচ বছর ক্ষমতায় থাকতে পারলে বিআরটিএর দুর্নীতি শতভাগ দূর করতে পারবেন।

তিনি বলেন, বিএনপির নেতাদের মধ্যে সমন্নয় নেই। বিএনপি এখন পাল ছেড়া নৌকার মতো হয়েছে। বিএনপি জনগণের মনের ভাষা বুঝতে পারেনি বলেই তারা এতদিন ধরে ক্ষমতার বাইরে রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন ধরনের ক্ষোভ থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে রাস্তায় নেমেছিল। তবে এ ধরনের চাপ না থাকলে সচেতনতা সৃষ্টি হয় না। এই ক্রাশ কর্মসূচি তাদের আন্দোলনেরই একটি অংশ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত