শিরোনাম

বাইশাকান্দায় নির্বাচনে আ.লীগ প্রার্থী মিজানের প্রার্থীতা প্রত্যাহার

আব্দুল কাদের, ধামরাই  |  ২০:৫০, জুলাই ১০, ২০১৯

ধামরাই উপজেলার ৫নং বাইশাকন্দা ইউনিয়ন পরিষদের (চেয়ারম্যান পদে) উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মিজানুর রহমান মিজান তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

নির্বাচন অফিস সুত্রে জানা গেছে, অসুস্থতাজনিত কারণ দেখিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করবেন না বলে তার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করেছেন। মঙ্গলবার (৯ জুলাই) মঙ্গলবার ছিল প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষদিন। ভোট গ্রহণ হবে আগামী ২৫ জুলাই।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মতো বিদ্রোহী প্রার্থী থাকায় ৯ জুলাই মঙ্গলবার মনোনয়ন প্রত্যাহার করেছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মিজানুর রহমান।

উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী পরিষদের সভা থেকে সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল অধ্যাপক মিজানুর রহমান মিজানকে। কার্যনির্বাহী পরিষদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক তিনি মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন অর্থাৎ গেল ৩০ জুন মনোনয়নপত্র জমাও দিয়েছিলেন।

এছাড়াও উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি শামীম রহমান ফারুক (৮নং ওয়ার্ডের সদ্য সাবেক সদস্য), বাইশাকান্দা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মফিজ উদ্দিন সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ রানাসহ আমিনুল ইসলাম সোহরাব ও মুহাম্মদ সামিউল হাসান স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

তবে স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে আমিনুল ইসলাম সোহরাব নিজেও মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন।

মনোনয়ন প্রত্যাহারের বিষয়ে অধ্যাপক মিজানুর রহমান বলেন, আমাকে মনোনয়ন দেয়ার পরও আওয়ামী লীগের অনেক পদধারী নেতা বিদ্রোহী প্রার্থী হয়েছেন। তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারে দলীয়ভাবে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ফলে এটা আমাকে বেশ পীড়া দিয়েছে। তাই প্রত্যাহার করে নিয়েছি।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে অধ্যাপক মিজানুর রহমানকেই আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে মনোনয়ন দেয়া হয়েছিল। কিন্তু ওই নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রাথী উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোহাদ্দেস হোসেন বিজয়ী হন। অধ্যাপক মিজানুর রহমান মিজান বাইশাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের ৪ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান ছিলেন।

তিনি বাইশাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ করেই গত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন।

বাইশাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান থাকাকালীন এলাকাবাসীর সঙ্গে ভাল ব্যবহার না করা ও নিয়মিত জনগণের সাথ যোগাযোগ না করাই কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে তার এমনটাই মনে করছে স্থানীয় জনগন।

বিদ্রোহী প্রার্থীরা নির্বাচনের মাঠে থাকলে ভোটের ফলাফল মিজানুর রহমানের বিপক্ষে যাবে বলেও মনে করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা।

উপজেলা নির্বাচন অফিসার ও বাইশাকান্দা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার আয়েশা আক্তার বলেন, আওয়ামী লীগে মনোনীত অধ্যাপক মিজানুর রহমান ও স্বতন্ত্রপ্রার্থী আমিনুল ইসলাম সোহরাব মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন।

আগামী ২৫ জুলাই ওই ইউনিয়নে মোট ৯টি ভোট কেন্দ্রের ৩৭টি কক্ষে ভোট গ্রহণ চলবে। ওই ইউনিয়নের মোট ভোটার সংখ্যা ১৩ হাজার ৭৭৯ এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ছয় হাজার ৮৬৪ ও মহিলা ভোটার রয়েছে ছয় হাজার ৯১৫।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত