শিরোনাম

‘ইসলামী শ্রমনীতি না থাকায় মেহনতি মানুষ ন্যায্য অধিকার বঞ্চিত’

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ২০:৫৫, মে ২৬, ২০১৯

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মাদ রেজাউল করীম পীর সাহেব চরমোনাই বলেছেন, দুর্নীতির কারণে কৃষি প্রধান বাংলাদেশে অধিকার হারা কৃষক-শ্রমিক মেহনতি মানুষের আর্তনাদে আকাশ-বাতাশ প্রকম্পিত।

তিনি বলেন, মিল ফ্যাক্টরিতে শ্রমিক আর মাঠে কৃষকদের দুর্দিন চললেও সরকার তাদের ব্যাপারে কার্যকরী ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। এতে প্রমাণিত হয় সরকার কৃষক-শ্রমিক বান্ধব নয়, লুটেরা বান্ধব।

পাটকল শ্রমিকরা বকেয়া বেতন ভাতার দাবীতে রমজান মাসে প্রচন্ড তাপাদাহের মধ্যে আন্দোলন করার পরেও তাদের পাওনা পরিশোধে সরকারের কার্যকরী কোন পদক্ষেপ নেই। কৃষক অনেক পরিশ্রমে ফসল উৎপাদন করে ক্ষতির সম্মূখীন হচ্ছে কিন্ত সরকারের পক্ষ থেকে কৃষি মন্ত্রীর তামাশার বক্তব্যে দেশের কৃষকরা হতাশ।

তিনি আরও বলেন, ইসলামী শ্রমনীতির অনুপস্থিতির কারণে কৃষক-শ্রমিক মেহনতি মানুষ ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত। দুর্ণীতি, দুঃশাসন, সন্ত্রাস ও মাদকমুক্ত সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ নিশ্চিত করতে ইসলামী হুকুমত প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনকে তৃনমূল পর্যায়ে আরো মজবুত করতে তিনি সকলের প্রতি আহবান জানান।

রবিবার (২৬ মে) বিকেলে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের উদ্যোগে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে “শ্রমিকের প্রকৃত মর্যাদা ও ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় মাহে রমজানের ভূমিকা” শীর্ষক আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি উপরোক্ত কথা বলেন।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর রাজনৈতিক উপদেষ্টা মুহাম্মাদ আশরাফ আলী আকন এর সভাপতিত্বে, সেক্রেটারী জেনারেল হাফেজ মাওলানা ছিদ্দিকুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর প্রেসিডিয়ামের অন্যতম সদস্য প্রিন্সিপ্যাল মাওঃ সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ এর মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ, যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, ইঞ্জিনিয়ার আশরাফুল আলম, আহমদ আবদুল কাইয়ূম, আলহাজ্ব আব্দুর রহমান, আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম, মুফতী মোস্তফা কামাল, মাওলানা আব্দুর রাজ্জাক, মাওলানা আবুল কালাম আজাদ, সৈয়দ মোঃ ওমর ফারুক, মুফতী মিজানুর রহমান, সিনিয়ল আইনজীবী এডভোকেট এম এ বাসেত, মাওলানা হেদায়েতুল্লাহ আজাদী প্রমুখ।

প্রিন্সিপ্যাল মাওঃ সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল মাদানী বলেন, ২০ রমজানে মক্কা বিজয় হয়েছিলো। বিজয়ের এই দিনে এদেশে ইসলামকে বিজয় করতে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের প্রতিটি সদস্যকে ত্যাগ ও কোরবানীর দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে।

তিনি গণমানুষের নিকট ইসলামের সুমহান আদর্শ পৌঁছে দেয়ার আহবান জানান।

মহাসচিব অধ্যক্ষ হাফেজ মাওলানা ইউনুছ আহমাদ বলেন, দেশের প্রতিটি সেক্টরে দুর্ণীতির কারণে দেশে আজ পারমানবিক বালিশের উৎপাদন শুরু হয়েছে।

তিনি বলেন, দুদককে এখনই আরো কার্যকর করে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে দুর্নীতি বন্ধ করা না গেলে দেশের ভবিষ্যত অন্ধকারে পতিত হবে। আগামী বাজেটে দুর্নীতি প্রতিরোধের কার্যকরী নির্দেশনা দেশবাসী আশা করে।

সভাপতির বক্তব্যে মুহাম্মাদ আশরাফ আলী আকন বলেন, শ্রমিকদের বঞ্চিত রেখে দেশে সঠিক উন্নয়ন হয়না দেশে। এ বাস্তবতা দেশের সরকার ও মিল মালিকরা যতদিন না বুঝবে ততদিন দেশের উন্নয়নের কোন আশা করা যায় না।

২৩ রমজানের আগে সকল শ্রমিককে বেতন, বকেয়া বেতন ও বোনাস প্রদান করে মাহে রমজানের শিক্ষা গ্রহণ করে শ্রমিকদের পাশে দাড়াঁতে সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানান তিনি।

আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত