শিরোনাম

চট্টগ্রামে হাল ধরার কেউ নেই উত্তর বিএনপির

জুবায়ের সিদ্দিকী, চট্টগ্রাম  |  ২৩:৩০, মে ১৫, ২০১৯

চট্টগ্রামে অভ্যন্তরীণ কোন্দল ও নেতৃত্ব সংকটে ভুগছে উত্তর জেলা বিএনপি। দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে দলের আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর কারাগারে থাকা এবং সদস্য সচিব কাজী আব্দুল্লাহ আল হাছানের মৃত্যুর পর উত্তর জেলায় এ সংকট সৃষ্টি হয়েছে।

এ কারণে দলের সাংগঠনিক কর্মসূচিগুলো যথাযথভাবে পালন করা যাচ্ছে না। চট্টগ্রামে দলের তিন সাংগঠনিক কমিটির মধ্যে অন্যতম উত্তর জেলা বিএনপি। উত্তর জেলার ৭ উপজেলা ও ৯ পৌরসভা নিয়ে এ কমিটি গঠিত। কমিটির অধীনে সংসদীয় আসন রয়েছে ৭টি। এ কারণে দলের মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ কমিটি এটি।

কিন্তু দলীয় কোন্দল ও নেতৃত্ব সংকটের কারণে এখানে অনেকটা স্থবির হয়ে পড়েছে বিএনপির সাংগঠনিক কার্যক্রম। বিএনপির দলীয় একটি সূত্র মতে, ২০১৪ সালে আসলাম চৌধুরীকে আহ্বায়ক ও কাজী আবদুল্লাহ আল হাছানকে সদস্য সচিব করে কমিটি ঘোষণা করে কেন্দ্র। এর মধ্যে ২০১৬ সাল থেকে আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরী কারাগারে রয়েছেন। সদস্য সচিব কাজী আব্দুল্লাহ আল হাছান মৃত্যুবরণ করেন ২০১৮ সালের ৮ জানুয়ারি। এ অবস্থায় নেতৃত্বশূন্য হয়ে পড়ে উত্তর জেলা বিএনপি।

এ ছাড়া কোন্দলের কারণে উত্তর জেলা বিএনপিতে দ্বিধাবিভক্তি রয়েছে। এ কারণে দলের কর্মসূচি পালন করা হয় আলাদাভাবে। দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও উত্তর জেলার আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি গ্রুপ এবং কাজী আব্দুল্লাহ আল হাছানের অনুসারীদের অপর একটি গ্রুপ সক্রিয় রয়েছে।

এর মধ্যে কাজী আব্দুল্লাহ আল হাছানের অনুসারীদের মাঝে মধ্যে দলীয় কর্মসূচি পালন করতে দেখা যায়। এতে উত্তর জেলা বিএনপির অবস্থা এখন অনেকটা দিকহারা নৌকার মতো। সেখানে যে যার মতো করে সাংগঠনিক কর্মসূচি পালন করছেন। এতে হতাশায় ভুগছেন তৃণমূলের কর্মীরা।

বিএনপির একটি সূত্র জানায়, এক সময় উত্তর জেলা বিএনপিতে যুদ্ধাপরাধের দায়ে ফাঁসি কার্যকর হওয়া বিএনপির নেতা সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর পরিবারের একটা শক্ত অবস্থান ছিল। তার ভাই গিয়াসউদ্দিন কাদের চৌধুরীর একটা নিজস্ব বলয় রয়ে গেছে। একইভাবে উত্তর জেলায় অবস্থান রয়েছে মীর মো. নাছির উদ্দিন ও গোলাম আকবর খন্দকার প্রমুখের।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীম বলেন, ‘দলকে আরও উজ্জীবিত করতে প্রতিটি উপজেলা কমিটির সাথে সভা করা হচ্ছে। উপজেলা ও পৌরসভা কমিটিগুলো আরও সক্রিয় হলে উত্তর জেলা বিএনপির কমিটির মধ্যে একটা চাঙ্গাভাব চলে আসবে’।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত