শিরোনাম

নির্ভীক নিষ্ঠতায় আপসহীন দৈনিক ‘আমার সংবাদ’

প্রিন্ট সংস্করণ॥ আজাদ হোসেন  |  ০১:০৮, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

সময়ের পরিক্রমায় নির্ভীক ও বস্তুনিষ্ঠতার প্রশ্নে আপসহীন আর পাঠকপ্রিয়তার পরীক্ষায় সফলভাবে উত্তীর্ণ দৈনিক আমার সংবাদ আজ ৬ষ্ঠ বর্ষে পদার্পণ করলো। ইতিহাসের যুগ-সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে মাথা উঁচু করে দৈনিক আমার সংবাদ জানান দিচ্ছে তার প্রবহমান ঐতিহ্য আর অস্তিত্বের কথা। জন্মের পর থেকে আপন মেধার বিকাশ ঘটিয়ে চারপাশে মানবিক প্রতিভার বিচ্ছুরণ ছড়িয়ে অগণিত পাঠককুলকে সঙ্গে নিয়ে সকল মন্দকে পায়ে মাড়িয়ে ক্লান্তিহীন এগিয়ে চলেছে নতুন আগামীর আবাহনে। দৈনিক আমার সংবাদ এখন আর কারো একার সম্পদ নয়। অর্পিত দায়িত্ব পালনের দায় মাথায় নিয়ে সে এখন জাতি ও দেশের সম্পদ। যে সম্পদ ভোগ করে চলেছে এ দেশের নিপীড়িত- নিষ্পেষিত ও বঞ্চিত-চিরঅবহেলিত গণমানুষ। এ দেশের আপামর জনগণের কাছে দায়বদ্ধ বলেই আজ বহুল প্রচারের এই মর্যাদাবান আসনে সমাসীন ঐতিহাসিক প্রয়োজনে জন্ম নেয়া এ পত্রিকাটি। অসংখ্য দৈনিকের ভীড়ে ছোট্ট অথচ সংবাদপত্রের সকল উপাদানে সমৃদ্ধ ঘূণেধরা সমাজব্যবস্থা ও সব ধরনের পিছিয়ে পড়ার প্রবণতাকে রুখতে প্রবল শক্তিতে এগিয়ে যাওয়ার কাফেলার নামই হলো দৈনিক আমার সংবাদ।
২০১৩-র ১২ ফেব্রুয়ারি দৈনিক আমার সংবাদের প্রথম সংখ্যা প্রকাশের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের সংবাদপত্রের ইতিহাসে নবজাতকের আবেশে আজকের জনপ্রিয় পত্রিকাটি সেদিন যাত্রা শুরু করে আজ অবধি দুরন্ত গতিতে ছুটে চলেছে অবিরাম। টেকনাফ থেকে তেঁতুলিয়া-রূপসা থেকে পাথুরিয়াÑ সর্বত্র। দিনে দিনে ক্রনিকহারে বাড়ছে এর ভক্ত ও পাঠককুল। বাংলাদেশ চলচিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তরের তালিকাভুক্ত দেশের অসংখ্য বাংলা সংবাদপত্রের মধ্যে দৈনিক আমার সংবাদের অবস্থান প্রথমদিকের সারিতে। অনেক বাঘা বাঘা আর নামকরা সংবাদপত্রকে পেছনে ফেলে মাত্র ৫ বছরেই তাদের থেকে যোজন দূরে ঠিক গণমানুষের আশ্রয়-ভরসাস্থলের জায়গাটুকু দখল করে নিতে সমর্থ হয়েছে সকলের ভালোবাসায়। পাঠক ও শুভানুধ্যায়ীর আকণ্ঠ সমর্থন আর বিজ্ঞাপনদাতাদের প্রকাশ্য সহযোগিতায় এ পত্রিকাকে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি কখনো। সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো ছাড়াও ব্যক্তিবিশেষ অবলীলায় তাদের পণ্যের ও প্রতিষ্ঠানের এবং অন্যসব কর্মকা-ের বিজ্ঞাপন প্রদান করে দৈনিক আমার সংবাদের পথচলাকে করেছেন আরো মসৃণ এবং কণ্টকমুক্ত। দৈনিক আমার সংবাদ অবনত মস্তকে স্বীকার করে দুহাত ভরে মানুষের কাছ থেকে পাওয়া সেই প্রাপ্তিকে।
দৈনিক আমার সংবাদ তার যাত্রা শুরুর পর থেকে অনেক চড়াই-উৎরাই, ঘাত-প্রতিঘাত আর সমাজ ও রাষ্ট্রের নানা অস্থিরতা এবং সংকটকালের বিপদসংকুল পরিস্থিতির সফল মোকাবিলার মাধ্যমে বিগত সময়ের অর্জিত অভিজ্ঞতাকে পুঁজি করে বাঙালি জাতির অহঙ্কার তথা শ্রেষ্ঠ অর্জন মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বুকে ধারণ করে আগামীর পথচলায় আপনাদের চিরকালের সাথী হয়ে এগিয়ে যেতে চায় নিরন্তর। দৈনিক আমার সংবাদ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করার কথা বলে, স্বাধীনতার পর থেকে আমাদের বাঙালি জাতির যতো অর্জন, এগিয়ে যাওয়া, বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোÑ এ সবের কথা বলে। মানুষে মানুষে কোনো ভেদাভেদ নেই, সবার আগে মানুষ, সবার উপরে মানুষ সত্য, আর মানবিকতায় হলো মানুষের আসল চরিত্রÑ এই মন্ত্র মেনেই পথ চলে দৈনিক আমার সংবাদ। সত্য ও সততার প্রশ্নে আপসহীন, অন্যায়-অনিয়মের ব্যাপারে কঠোর মনোভাবের পরিচয় বহন করে চলে সবসময়। অসহায়-দুস্থ মানুষের পাশে দাঁড়াতে আর দুষ্টের দমন-শিষ্টের পালন করার নীতি মেনে সমাজপতিদের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে গণমানুষের ভালোবাসার দুর্নিবার আকর্ষণে প্রস্তর বিছানো প্রান্তরে নির্ভয়ে হেঁটে চলা অকুতোভয় কাফেলার নামই দৈনিক আমার সংবাদ। লেখক : সাংবাদিক

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত