শিরোনাম

পিরিয়ড চলাকালীন ভুলেও যা করবেন না

আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১৪:০৫, নভেম্বর ১০, ২০১৮

পিরিয়ড নিয়ে মেয়েরা অনেক রকমের নিয়ম পালন করেন। আবার কেউ কেউ এই পিরিয়ডের সময়ে একদম বিন্দাস থাকেন। এই পিরিয়ডের সময় কেউ হয়তো কাপড় ব্যবহার করেন আবার কেউ কেউ বাজারে যে স্যানিটারি ন্যাপকিন বা প্যাড পাওয়া যায় তা ব্যবহার করেন। অনেকেই এই বিষয় নিয়ে যথেষ্ট খোলামেলা, আবার কেউ কেউ দোকানে স্যানিটারি ন্যাপকিন কিনতে যাবেন কি যাবেন না বেই নিয়েও সাত পাঁচ ভাবেন। কিন্তু এসব কিছুর মাঝেই অনেকেই কিছু ছোটো ছোটো ভুল করে বসেন। সেই ভুলগুলো কি কি জানেন?

ব্যাথা কমানোর ওষুধ : মাসিক শুরু হওয়ার পরে অনেক যন্ত্রণায় মারাত্মক কষ্ট পান। অসহ্য এই ব্যাথার হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য অনেকেই আবার বিভিন্ন ওষুধ ও খান। ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া যদি আপনি দিনের পর দিন এই ওষুধগুলি খেতে থাকেন তাহলে আপনার শরীরে আরও নানারকম সমস্যা হতে বাধ্য। হার্ট থেকে শুরু করে, লিভার ও কিডনির সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান না করা : অনেকেই এমন আছেন যাঁরা বাথরুমে বার বার যাওয়ার ভয়ে পানি কম খান, যা উল্টে কিন্তু আপনার ভালোর পরিবর্তে বিপদই ডেকে আনে এই সময় যদি আপনি জল খান তাহলে কিন্তু আপনার ব্যাথাও কমবে। তবে অবশ্যই পরিমাণ মতো পানি খান। যদি পারেন তাহলে চা- কফি এড়িয়ে চলুন এই সময়ে।

ঘুমের অভাব : কারও কারও দেরিতে ঘুমোতে যাওয়ার বা কম ঘুমনোর অভ্যাস রয়েছে। সবসময় মনে রাখবেন যে পিরিয়ডের সময় কিন্তু শরীর দুর্বল থাকে, তাই এই সময়ে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম অবশ্যই প্রয়োজন।

কাপড়ের ব্যবহার : এখন সব জায়গায় স্যানিটারি ন্যাপকিনের ব্যবহার বেড়েছে ঠিকই কিন্তু গ্রামের দিকে এখনও অনেকেই কাপড় ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু মাথায় রাখবেন পিরিয়ডসের সময় কিন্তু ব্যাকটিরিয়া সংক্রমণের ঝুঁকি বেশি থাকে। তাই ব্যবহৃত করা কাপড় যদি পরিষ্কার করে ধুয়ে তা আবার ব্যবহার করেন তাহলেও কিন্তু এই সংক্রমণের ঝুঁকি কমে যায় না।

প্যাড বা স্যানিটারি ন্যাপকিন বদলাতে থাকুন : দীর্ঘক্ষণ একই প্যাড না পড়ে থেকে ৫-৬ ঘন্টা অন্তর অন্তর সেটা বদলে ফেলুন। না হলে কিন্তু আপনার শরীরে ব্যাকটিরিয়াজনিত সমস্যা দেখা দিতে পারে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত