শিরোনাম

দুধপানের সময় শিশু ঘুমিয়ে গেলে যা করবেন

আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১৩:১৫, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০১৮

বুকের দুধ পান করার সময় শিশুর ঘুমিয়ে পড়াটা স্বাভাবিক। প্রধাণ কারণ তার পেট ভরে গেছে, সে সন্তুষ্টি নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েছে। তবে ব্যাপারটা সবসময় এবং খুব তাড়াতাড়ি ঘটতে থাকলে সচেতন হওয়ার দরকার।

অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নবজাতকরা দুধ পান করতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। ফলে তার পেট ভরেছে কিনা তা বুঝতে পারা দুষ্কর, শিশুর কিছু আচরণ থেকে সে সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যায়। প্রতিষ্ঠিত এই ধরনের লক্ষণগুলো নিয়ে শিশুবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে প্রকাশিত প্রতিবেদন অবলম্বনে কয়েকটি বিষয় এখানে উল্লেখ করা হলে।

যে কারণে শিশু দুধ পান করার সময় ঘুমিয়ে পড়ে:
বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই, জন্মের পরের প্রথম কয়েক মাস শিশু দুধ পান করার সময় ঘুমিয়ে পড়ে। নবজাতকের ক্ষেত্রে দিনে ১৪ থেকে ১৮ ঘন্টা ঘুমানো স্বাভাবিক। প্রত্যেকটা শিশুই আলাদা এবং নতুন পরিবেশের সঙ্গে খাপ খাওয়াতে তাদের ভিন্ন ভিন্ন সময় লাগে। তাই আপনার শিশু যদি দুধ পান করার সময় ঘুমিয়ে পড়ে, তাহলে হতে পারে এটা তার ঘুমানোর ধরণ। আর তারা যখন এর সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবে তখন সে আরও বেশি কর্মচঞ্চল থাকবে।

লক্ষণীয়:
স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, যে শিশুদের প্রথম পর্যায়ে নিজেদের জীবনের সঙ্গে যুদ্ধ করতে হয় তারা ঠিক মতো দুধ না পেলেও, দুধ পান করার সময় ঘুমিয়ে পড়তে পারে। এই শিশুরা অনেক সময় দুধ পান করতে গিয়ে ক্লান্ত হয়ে ঘুমিয়ে যায়। এমনও হতে পারে তারা দুধ না পেয়ে হতাশ হয়ে ঘুমিয়ে পড়াকেই শ্রেয় মনে করে। এটা তার বৃদ্ধি ও বিকাশের উপর প্রভাব রাখে। কিছু শিশু পাঁচ মিনিটের মধ্যেই পেট ভরে দুধ পান করতে পারে। আবার অনেক শিশুই ২০ মিনিট দুধ খাওয়ার পরও অতৃপ্ত থাকে।

শিশুর আচরণ লক্ষ করুন:
শিশুর পেট ভরেছে নাকি খালি তা বুঝতে তার আচরণের দিকে খেয়াল রাখুন। শিশু যদি খেতে খেতে ঘুমিয়ে পড়ে এবং তার হাত খোলা ও প্রশান্ত থাকে তাহলে বুঝতে হবে সে পেট ভরে খেয়েছে। আর যদি তার আঙুল শক্ত করে মুঠ পাকানো আর চেহারায় দুশ্চিন্তার ছাপ থাকে তাহলে বুঝতে হবে তার পেট ভরেনি, সে এখনও ক্ষুধার্ত।

করণীয়:
যদি এই লক্ষণগুলো শিশুর মধ্যে দেখা যায় এবং বোঝেন যে তার ঠিক মতো পেট ভরছে না তাহলে চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করুন। তিনি শিশুর পেট ভরানোর উপায় বলে দিয়ে সাহায্য করতে পারবেন। ফলে শিশু সুস্থ ও স্বাস্থ্যবান থাকবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত