শিরোনাম

শরীরের কোন জায়গায় স্প্রে করা যাবে না?

আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১০:৪৮, জুলাই ১৬, ২০১৯

গরমকালে খুব জরুরী একটা উপাদান হল পারফিউম। এই সময় পারফিউম ছাড়া বের হওয়ায় মুশকিল। কারণ, শরীরের দুর্গন্ধ অন্য কারো নাকে গেলে অপ্রিয় হয়ে উঠতে পারেন আপনিও। বিশেষ করে যারা প্রেমের সম্পর্কে আছেন, তাদের জন্য আরো বেশী জরুরী এই পারফিউম।

প্রেমিক বা প্রেমিকার স্পর্শ নিতেও সুগন্ধি ব্যবহার করতে হয় তাকে। এই কারণে ঘর থেকে বের হওয়ার আগে যে জিনিসটি সবচেয়ে বেশী প্রয়োজনীয়, সেটি হল পারফিউম। তবে পারফিউম দিতে গিয়ে অনেকেই ভুল করে বসেন।

অনেকেই শরীরের ভুল জায়গায় পারফিউম দেন। যেতা আপনার শরীরে সুগন্ধি ছড়াবে ঠিকই তবে ক্ষতি করবে বেশী। তাই আজ জেনে নিন, শরীরের যেসব জায়গায় পারফিউম না দেয়া ভালো-

চোখ: চোখ নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। মানুষের শরীরের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ চোখ। এর মাধ্যমে আমরা আলোর উপস্থিতি বা অনুপস্থিতি পার্থক্য করতে পারি।

একটি পারফিউমে ৯৫ শতাংশ পর্যন্ত অ্যালকোহল বা স্পিরিট থাকতে পারে, এতে চোখে চুলকানি থেকে শুরু করে আরো বড় কোন সমস্যা হতে পারে। তাই ভুলে কখনো চোখে পারফিউম দেওয়ার মতো বোকামি করবেন না কেউই। আর যদি চোখে ভুলে পারফিউম চলে যায় তাহলে দ্রুত অনেক বেশি পানি দিয়ে চোখ ধুয়ে ফেলতে হবে।

চুল: অনেকেই সুগন্ধি ছড়াতে চুলে স্প্রে করা থাকে। তবে এটা চুলের জন্য বড় ধরনের ক্ষতির সামিল। কারণ পারফিউমে অ্যালকোহলের পরিমাণ বেশী থাকে। যা চুল পড়া থেকে শুরু করে আরো অনেক ধরনের বিপদে আপনাকে ফেলতে পারে।

হাত: হাতের কবজি অনেকেই পারফিউম স্প্রে করেন এবং দুহাতের কব্জি এক করে ঘষে নেন। এতে সারাদিনই শরীরে সুগন্ধি থাকে। কিন্তু কব্জি থেকে যেন এই পারফিউম হাতে না লেগে যায়। কারণ তাতে ত্বক শুষ্ক হতে পারে এমনকি ত্বক ফেটেও যেতে পারে। আর হাত থেকে চোখে পারফিউম গেলে তাতেও সমস্যা হতে পারে।

বগল: সাধারণত বেশীরভাগ মানুষ ডিওডোরেন্ট বগলে দেয়া হয়। যা একেবারে উচিত নয়। কারণ মানুষের বগলে থাকা ঘাম গ্রন্থিতে জ্বালাপোড়া তৈরি করতে পারে। পরবর্তীতে তা আপনাকে বড় সমস্যায়ও ফেলতে পারে।

পারফিউম দেবেন কোথায়?

মানুষের শরীরে পারফিউম দেয়ার সবচেয়ে উপযুক্ত জায়গা হল, গলা, কব্জি ও হাঁটুর আশপাশ। এসব জায়গায় ত্বকের তাপ বেশি থাকে বলে পারফিউম শরীরের কোন ক্ষতি করতে পারে না।

জেডআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত