শিরোনাম

দীর্ঘ পাঁচ বছরেও জমা হয়নি ফারুকী হত্যার প্রতিবেদন

খায়রুল কবীর  |  ২০:৪১, জুন ১৮, ২০১৯

বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আইয়ের ইসলামবিষয়ক অনুষ্ঠান ‘ক্যাফেলা’র উপস্থাপক মাওলানা নূরুল ইসলাম ফারুকী হত্যা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দীর্ঘ পাঁচ বছরেও জমা দিতে পারেনি মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।

মঙ্গলবার (১৮জুন) এ মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য ছিল। কিন্তু এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির পুলিশ পরিদর্শক আরশেদ আলী মন্ডল প্রতিবেদন দাখিল করতে না পারায় মামলার নথি পর্যালোচনা করে ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস প্রতিবেদন দাখিলের ২৮ জুন তারিখ ধার্য করেছেন।

এ মামলার তদন্তভার প্রথমে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) হাতে থাকলেও পরে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) দায়িত্ব পায়।

নূরুল ইসলাম ফারুকী খুনের চার বছর পর হত্যাকাণ্ডে জড়িত কয়েকজনের নাম পাওয়ার কথা জানায় সিআইডি। গ্রেপ্তার এক জঙ্গির আদালতে দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিতে তাদের নাম জানা গেছে বলে জানিয়েছিল মামলাটির বর্তমান তদন্ত সংস্থা সিআইডি।

হাদিসুর রহমান সাগর নামে ওই ব্যক্তির জবানবন্দির ভিত্তিতে সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্লা নজরুল ইসলাম বলেছিলেন, ইসলাম সম্পর্কে ব্যাখ্যা নিয়ে বিরোধ থেকে এই হত্যাকাণ্ড ঘটায় জঙ্গিরা।

তিনি আরোও বলেছিলেন, তিনি দায়িত্ব নেওয়ার পর তদন্তে সাগরসহ বেশ কয়েকজনের নাম পান তারা। পরে খোঁজ নিয়ে জানেন, সাগর অন্য মামলায় গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে রয়েছেন। তখন তারা ফারুকী হত্যা মামলায় সাগরকে অ্যারেস্ট দেখিয়ে রিমান্ডে আনার পর জিজ্ঞাসাবাদে এই হত্যাকাণ্ড সম্পর্কে বেশ কিছু তথ্য দেয়। এরপর আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন সাগর।

২০১৪ সালের ২৭ আগস্ট রাজধানীর পূর্ব রাজাবাজারের বাসায় দুর্বৃত্তরা কুপিয়ে ও জবাই করে হত্যা করে উপস্থাপক ও হাইকোর্ট মাজার মসজিদের খতিব মাওলানা নূরুল ইসলাম ফারুকী।

হত্যার পর ফারুকীর ছেলে শেরেবাংলা নগর থানায় বাদী হয়ে আট-নয়জনকে আসামি করে হত্যা ও ডাকাতির অভিযোগে মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় বিভিন্ন সময় সন্দেহভাজন হিসেবে জেএমবি, আনসারুল্লাহ ও হুজির ১৩ সদস্যসহ ১৬ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের মধ্যে ১২ জন বর্তমানে কারাগারে রয়েছে।

নিহত ফারুকী চ্যানেল আইয়ের ধর্মীয় অনুষ্ঠান ‘কাফেলা’ ও ‘শান্তির পথে’, মাই টিভির লাইভ অনুষ্ঠান ‘সত্যের সন্ধানে’ এর উপস্থাপক ছিলেন। এছাড়া, তিনি আহলে সুন্নাত ওয়াল জামায়াত বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক সম্পাদক এবং সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের খতিব ছিলেন।

আরআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত