ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্কুলছাত্র হত্যায় ৬ আসামি জেলহাজতে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া (সদর) প্রতিনিধি  |  ২৩:১২, জুন ১১, ২০১৯

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় শরবতের সাথে বিষপান করিয়ে স্কুল ছাত্র মো. মুরশেদ উল্লাহ জয়-(১২) হত্যার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার ৬ জন আসামিকে জেলহাজতে প্রেরণ করেছে আদালত।

মঙ্গলবার সকালে মামলার ৬ আসামি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সরওয়ার আলমের আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

আসামিরা হলো- ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের ঘাটুরা গ্রামের মৃত. বজলু মিয়ার ছেলে মো. কুতুবুর রহমান, গাউছুর রহমান ও অলিউর রহমান, একই এলাকার জুরু হাজারীর ছেলে রিয়াদ, অলিউর রহমানের ছেলে মুন্না এবং আজিজ খন্দকারের ছেলে রুবেল। স্কুলছাত্র মুরশেদ উল্লাহ জয় ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার মেড্ডা গ্রামের শাহীন কবীরের ছেলে।

সে তার মায়ের সাথে সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের ঘাটুয়ায় বসবাস করতো। সে ঘাটুরার গৌতমপাড়া বঙ্গবন্ধু উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ছিলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জয় হত্যা মামলার বাদি পক্ষের আইনজীবী মো. মোরজান মিয়া জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে গত ২৫ এপ্রিল বিকেলে আসামিরা জয়কে বাড়ি থেকে ডেকে ঘাটুরার মিলন বাজারে অবস্থিত আসামি কুতুবউদ্দিনের মুদি মালের দোকানে নিয়ে আসে।

পরে দোকানে বসিয়ে শরবতের সাথে বিষ মিশিয়ে জয়কে পান করিয়ে বাড়িতে ফেরত পাঠিয়ে দেয়। বাড়িতে গিয়ে সে অসুস্থ হয়ে পড়ে। আশংকাজনক অবস্থায় তাকে জেলা সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় পরদিন জয়ের বড় ভাই ছানাউল্লাহ রনি বাদি হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় ৭জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর পুলিশ মামলার আসামি ঘাটুরার মৃত বজলু মিয়ার ছেলে ওসমান মিয়াকে গ্রেপ্তার করে। বাকী ৬ আসামি উচ্চ আদালত থেকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন নেন।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে ৬ আসামি আদালতে আত্মসমর্পন করে জামিন প্রার্থনা করলে বিজ্ঞ বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাদেরকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আদালতের ইন্সপেক্টর দিদারুল আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনিও বিষয়টি নিশ্চিত করেন।