শিরোনাম

সীতাকুণ্ডে ৬৫৯ জনের বিরুদ্ধে পুলিশের মামলা

প্রিন্ট সংস্করণ॥জহুরুল ইসলাম সীতাকুণ্ড (চট্টগ্রাম)  |  ০০:৪৪, মে ২৩, ২০১৯

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডের কুমিরা জেলেপাড়ায় জেলে ও পুলিশের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় সুনির্দিষ্ট ৫৯ জনসহ অজ্ঞাত ৬শ ব্যক্তিকে আসামি করে বুধবার সীতাকুণ্ড মডেল থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে সীতাকুণ্ড মডেল থানার এসআই জাহিদুল ইসলাম জসিম বাদি হয়ে এই মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় আটক ১১ জন জেলেকে বুধবার আদালতে পাঠানো হলে বিজ্ঞ বিচারক তাদের জেলহাজতে প্রেরণ করেন। এদিকে সংঘর্ষের পর থেকে জেলেপাড়ায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। গ্রেপ্তার আতঙ্কে পুরো জেলেপাড়া পুরুষ শূন্য হয়ে পড়েছে।

জানা যায়, গত সোমবার রাত আনুমানিক ১১টার দিকে সীতাকুণ্ডের কুমিরা ইউনিয়নের বড় কুমিরা ঘাটঘর জেলেপাড়ায় রুবেল জলদাশ (৩০) নামক এক যুবককে আটক করেন সীতাকুণ্ড থানার এসআই জাহেদ হোসেন জসীম।

এসময় জেলেরা তাকে গ্রেপ্তারের কারণ জানতে চেয়ে বাধা দিলে জসীম ও সাথে থাকা ফোর্সের সাথে জেলেদের কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে হাতাহাতি লেগে যায়। এতে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এ ঘটনার পর সীতাকুণ্ড থানা এবং চট্টগ্রাম নগরী থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে তাদের সাথে যোগ দেয়।

এদিকে ঘটনার সময় সেখানে বিলম্বু দাসী (৭৫) নামক এক মহিলার আকস্মিক মৃত্যু হলে পুলিশের হামলায় বৃদ্ধা নিহত হয়েছে বলে গুজব ছড়িয়ে পড়ে। এতে পুলিশের সাথে জেলেদের ব্যাপক সংঘর্ষ শুরু হয়। এতে গুলিবিদ্ধ হন মতিলাল জলদাশ (৮০), আংগুলী বালা জলদাশ (৬৫) নামে দুই বৃদ্ধসহ পুলিশের তিন সদস্য।

আহত হয় উভয়পক্ষের অন্তত ৩০-৩৫ জন। সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. আফজাল হোসেন, সরকারি কাজে বাধা ও পুলিশের ওপর হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে বলে তিনি জানান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত