শিরোনাম

মেডিকেল শিক্ষার্থীকে ধর্ষণ, শেকৃবির ছাত্র রিমান্ডে

আদালত প্রতিবেদক  |  ২০:২৮, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

মার্কস মেডিক্যাল কলেজের এক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তারকৃত শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র বাধন মাতব্বরকে এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। বৃহস্পতিবার মামলার তদন্তক কর্মকর্তা শেরে বাংলা থানার এস.আই সাহেরা খানম তাকে ঢাকার সিএমএম আদালতের হাজির করে ৫ দিনের রিমান্ড চান। আসামি পক্ষে রিমান্ড বাতিল করে জামিনের জন্য আবেদন করেন। উভয়পক্ষে বক্তব্য শুনে ঢাকা মহানগর হাকিম মাসুদ উর রহমান এ রিমান্ডের মঞ্জুর করেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়- গত ১৭ এপ্রিল সকাল ১০টার দিকে শেরেবাংলা নগর কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নম্বর গেট হতে ভিকটিমকে ফুসলিয়ে অনুরাগ হোটেলের আশেপাশে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। পরে ভিকটিমের কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করে। ভিকটিম টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে আসামি ভিকটিমকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং মানসিকভাবে নির্যাতন করে।

ওই দিন বিকেল ৫ টার মধ্যে টাকা না দিলে তার আপত্তিকর ছবিগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে ও মামলার ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন পূর্বক মামলার ঘটনাস্থল সনাক্ত ও ভিকটিমের অশ্লীল ছবির ভিডিও ফুটেজ উদ্ধারের লক্ষ্যে আসামিকে ৫ দিনের রিমান্ড নেওয়া প্রয়োজন।

অন্যদিকে রিমান্ড বাতিল করে জামিন দেওয়ার জন্য আসামিপক্ষে আইনজীবী নূর আলম সরকার আদালতে বলেন, এই ঘটনার সাথে বাদল মাদব্বর জড়িত নয়। সে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের এগ্রি বিজনেস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অনুষদের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র। তকে রিমান্ডে না নিয়ে জামিন দেওয়া প্রয়োজন। জামিন দিলে পলাতক হইবে না।

উল্লেখ্য, বাধন ওই মেয়েকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করেন এবং সেই দৃশ্য মুঠোফোনে ধারণ করেন। পরবর্তীতে সে ধারণকৃত দৃশ্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়ে ওই মেয়ের কাছে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। এ বিষয়ে ভুক্তভোগী মেয়ে বাদী হয়ে শেরেবাংলা নগর থানায় এ মামলা করেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত