শিরোনাম

স্ত্রীকে আগুনে জ্বালিয়ে হত্যা, দায় স্বীকার স্বামীর

আদালত প্রতিবেদক  |  ২০:২৪, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

রাজধানীর মুগদায় স্ত্রী হাসি আক্তারকে (২৩) শ্বাসরোধে হত্যার পর গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন দেওয়ার মামলায় স্বামী কোমল হোসেন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। বৃহস্পতিবার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মুগদা থানার ওসি (তদন্ত) মাসুদুর রহমান আসামিকে আদালতে হাজির করে ফৌজদারী কার্য বিধির ১৬৪ ধারায় স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মিল্লাত হোসেন তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

মুগদা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রলয় কুমার সাহা সাংবাদিকদের জানান, ‘হাসি আত্মহত্যা করেছে বলে চালিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করেছিল কোমল। প্রথমে গলা টিপে হাসিকে হত্যা করে কোমল। এরপর পূর্ব-পরিকল্পনা অনুযায়ী আগে থেকে আনা কেরোসিন তার গায়ে ঢেলে দিয়াশলাইয়ের কাঠি জ্বালিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে হাসির দুই পাসহ শরীরের বেশকিছু অংশ পুড়ে গেছে।

ওই এলাকার স্থানীয়রা গণমাধ্যমেকে বলেন, দক্ষিণ মুগদার ব্যাংক কলোনি এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন এ দম্পতি। গত দুই মাস হলো এই বাসায় এসেছেন তারা। আট মাস আগে হাসি ও কোমল উভয়কে ভালোবেসে বিয়ে করেন। উভয়েরই এটি দ্বিতীয় বিয়ে। হাসির আগের ঘরে একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। তবে হাসি-কোমল দম্পতির মধ্যে প্রায় সময়ই ঝগড়া লেগে থাকতো। ঘটনার আগের রাতেও তারা ঝগড়া করে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত