শিরোনাম

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচন: প্রথম দিনে দিয়েছেন ২৯৭০ জন ভোটার

আদালত প্রতিবেদক  |  ১৯:৪৩, মার্চ ১৩, ২০১৯

আইনজীবীদের অন্যতম সংগঠন সুপ্রিম কোর্ট বার সমিতির নির্বাচনের দুই দিনব্যাপী ভোটগ্রহণের প্রথম দিনে বুধবার (১৩ মার্চ) ভোট দিয়েছেন ২৯৭০ জন ভোটার। সকাল ১০টা থেকে বিকেল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত সমিতির শহীদ শফিউর রহমান মিলনায়তনে এ ভোটগ্রহণ করা হয়। সুপ্রিম কোর্ট বারের সুপারিনটেনডেন্ট (তত্তাবধায়ক) নিমেষ চন্দ্র দাস সাংবাদিকদের বলেন, এবারের নির্বাচনে মোট ৭ হাজার ৮২৫ জন আইনজীবী তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন।

দুপুরে এক ঘণ্টা বিরতি দিয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও ভোটারদের লাইন শেষ না হওয়ায় ৩০ মিনিট সময় বাড়ানো হয়। মোট ৪৪টি বুথে একযোগে আইনজীবীরা তাদের ভোট প্রদান করেন। বৃহস্পতিবার আবারো সকাল ১০টা থেকে দ্বিতীয় দিনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতি বছর (যার মেয়াদকাল এক বছর) ২০১৯-২০২০ সেশনে সুপ্রিম কোর্ট বারের কার্যনির্বাহী কমিটির ১৪টি পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে ৭টি সম্পাদকীয় ও ৭টি নির্বাহী সদস্যের পদ রয়েছে। এবারের নির্বাচনে পূর্ণাঙ্গ প্যানেল ঘোষণা করেছে সরকার সমর্থিত সাদা প্যানেল এবং বিএনপি-জামায়াত সমর্থিত নীল প্যানেল। এ ছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সভাপতি পদে দু’জন এবং সদস্য পদের জন্য একজনসহ মোট ৩৩ প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আওয়ামী লীগ সমর্থিত (সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ) প্যানেলে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন আবু মোহাম্মদ আমিন উদ্দিন (এএম আমিন উদ্দিন)। সম্পাদক পদে অ্যাডভোকেট আব্দুন নূর দুলাল, সহ-সভাপতি পদে মো. জসিম উদ্দিন ও বিভাস চন্দ্র বিশ্বাস, সহ-সম্পাদক পদে বাসির উদ্দিন ভূঁইয়া এবং কাজী শামসুল হাসান শুভ, ট্রেজারার পদে সৈয়দ আলম টিপু। এছাড়া সদস্য পদে মোহাম্মদ জগলুল কবির, মশিউর রহমান, শামীম সরদার, আফিয়া আফরোজি রানী, আওলাদ হোসেন, হুমায়ূন কবির, চঞ্চল কুমার বিশ্বাস।
অন্যদিকে বিএনপি সমর্থিত নীল প্যানেল থেকে সভাপতি হিসেবে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল জামিল (এ জে) মোহাম্মদ আলী এবং সম্পাদক পদে বর্তমান সম্পাদক ব্যারিস্টার এএম মাহাবুব উদ্দিন খোকন প্রার্থী হয়েছে।

সহ-সভাপতি পদে মো. আব্দুল জব্বার ভূইয়া এবং আব্দুল বাতেন। কোষাধ্যক্ষ পদে মো. ইমাম হোসেন। সহ-সম্পাদক পদে মোহাম্মদ মুজিবুর রহমান এবং শরীফ ইউ আহম্মেদ। এছাড়া সদস্য পদে অ্যাডভোকেট রাশিদা আলিম ঐশী, মোহাম্মদ ওসমান চৌধুরী, কাজী আখতার হোসেন, মো. শাফিউর রহমান, মো. শরীফ উদ্দিন রতন, মো. মোহাদ্দেস উল ইসলাম ও সৈয়দা শাহীন আরা লাইলি প্রার্থী হয়েছেন।

এ দুই প্যানেল ছাড়াও স্বতন্ত্রভাবে সভাপতি প্রার্থী হয়েছেন এবি এম ওয়ালিউর রহমান খান ও ড. মো. ইউনুছ আলী, সহ-সম্পাদক পদে ফরহাদ উদ্দিন আহমেদ ভুইয়া ও সদস্য পদে তপন কুমার দাস।

সুপ্রিম কোর্ট বারের সুপারিনটেনডেন্ট (তত্তাবধায়ক) নিমেষ চন্দ্র দাস জানান, এবারের নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এ ওয়াই মশিউজ্জামান। তার নেতৃত্বে একটি সাব-কমিটি দায়িত্ব পালন করছে।

ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, ২০ ফেব্রুয়ারি থেকে ৩ মার্চ পর্যন্ত মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমার দিন ধার্য ছিল। মনোনয়ন প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শেষে এখন চূড়ান্তভাবে ৩৩ জন প্রার্থী রয়েছেন।  এবার হারানো ইমেজ পুনরুদ্ধার করতে আপ্রাণ চেষ্টা করছে বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ । অপরদিকে বিএনপি-জামায়াতের প্রার্থীরা নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে মরিয়া।

এদিকে ভোটের আগেরদিন মঙ্গলবার (১২ মার্চ) সকালে আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগে কার্যক্রম শুরুর আগে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের প্রার্থী এবং তাদের সমর্থক আইনজীবীরা দলবেঁধে প্রচার-প্রচারণা চালান।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত