শিরোনাম

ইইউ সংসদে অবাধে চলে যৌননির্যাতন!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  |  ১৬:৩৮, অক্টোবর ২৩, ২০১৭

সম্প্রতি রাজনীতির মঞ্চেও যৌন হেনস্থার শিকার হচ্ছেন নারীরা! অভিযোগ, যৌননির্যাতনের আখড়া হয়ে দাঁড়িয়েছে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) পার্লামেন্ট। রবিবার আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘দ্য সানডে টাইমস’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইইউ সংসদে অবাধে চলে যৌননির্যাতন।
পুরুষ সাংসদদের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ এনেছেন বেশ কয়েকজন নারী সাংসদ।

এক নির্যাতিত জানান, তাঁর গোপন অঙ্গে একাধিকবার হাত দিয়েছেন ৬০ বছরের এক প্রভাবশালী সাংসদ। বিষয়টি এক সহকর্মীকে জানান তিনি। তবে শেষমেষ চাকরি যাওয়ার ভয়ে বাধ্য হয়ে মুখ বুজে থাকতে হয় তাকে। ওই ঘটনার পর থেকেই প্রবল আতঙ্কে রয়েছেন তিনি। ২৪ বছরের আরও এক নারীও এমন ভয়ানক পরিস্থিতির শিকার হয়েছেন। তাঁর দাবি, জার্মানির এক সাংসদ একাধিকবার তাঁর পিছু নেন ও শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করেন।

পরিস্থিতির জন্য ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের পার্লামেন্টের পরিকাঠামোকেই দায়ি করেছেন নির্যাতিতারা। তাঁরা জানিয়েছেন, ঘৃণ্য উদ্দেশ্য নিয়েই সুন্দরী যুবতীদের সহকারী পদে নিযুক্ত করেন সাংসদরা।তারপর নানা আছিলায় তাদের গোপনাঙ্গে হাত দিয়ে এমনকি, জোর করে সঙ্গমে বাধ্য করা হয় তাদের। পেটের দায়ে অনেকেই মুখ বুজে থাকতে বাধ্য হন। তাই অবাধে চলে এইসব ঘটনা। অভিযোগ জানালেও প্রশাসনিক জটে তা আটকে থাকে।

ফলে ন্যায় পাওয়ার পথ কার্যত বন্ধ। অনেক ক্ষেত্রেই নিজেদের প্রভাব বিস্তার করে এই সব মামলা ধামাচাপা দিয়ে দেন অভিযুক্তরা। এই পরিস্থিতিতে ক্রমেই অভিযোগ জানানোর সাহস হারিয়ে ফেলছেন অনেকেই। অনেক সময় বিষয়টি জানতে পেরেও মুখ বুজে থাকতে বাধ্য হন পুরুষ সহকর্মীরাও।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি মার্কিন ছবি নির্মাতা হার্ভে ওয়েনস্টাইনের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ জানান প্রায় ৬০ জন মহিলা। সংবাদ প্রতিদিন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত