শিরোনাম

দিল্লির নাকের ডগায় পাকিস্তানের পরমাণু ঘাঁটি, উদ্বেগে ভারত!

প্রিন্ট সংস্করণ॥ আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১০:১৭, অক্টোবর ১২, ২০১৭

পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে বৈরিতা কোনো নতুন বিষয় নয়। দুই দেশের জন্মের পর থেকেই কাশ্মীর, সীমান্ত উত্তেজনা, জঙ্গিবাদ ও গুপ্তচরবৃত্তিসহ নানা ইস্যুতে বিবাদে জড়িয়েছে তারা। একে অন্যকে ঘায়েল করতেই মরিয়া ভারত-পাকিস্তান। সম্প্রতি মার্কিন চাপে কিছুটা বিপাকে পড়লেও পিছপা হয়নি পাকিস্তান। এমনই পরিস্থিতিতে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দাদের হাতে এসেছে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। ওই রিপোর্ট মোতাবেক, রাজধানী নয়াদিল্লির কাছেই গোপন সুড়ঙ্গ তৈরি করছে পাক সেনা। ওই সুড়ঙ্গে থাকবে পারমাণবিক মিসাইল ও বোমা। এক সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রায় ১৪০টি পরমাণু বোমা তৈরি করে ফেলেছে পাকিস্তান। তবে এতেই ক্ষান্ত না থেকে আরও বোমা বানাছে ওই দেশ। নিশানায় যথারীতি ভারত।  জানা গেছে, পাকিস্তানের মিয়ানওয়ালি নামের জায়গায় পরমাণু অস্ত্রঘাঁটি তৈরি করা হচ্ছে। অমৃতসর থেকে ওই জায়গার দূরত্ব প্রায় ৩৫০ কি.মি। উদ্বেগজনকভাবে মিয়ানওয়ালি থেকে দিল্লির দূরত্ব মাত্র ৭৫০ কিমি। ফলে সেখান থেকে মিসাইল ছুড়লে মুহূর্তের মধ্যে তা দিল্লিতে আঘাত হানবে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পেশ করা গোয়েন্দাদের এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ইতোমধ্যে পাক পরমাণু ঘাঁটির কাজ অনেকটাই এগিয়ে গেছে। বিমানহানা থেকে বাঁচাতে মাটির নিচে তিনটি সুড়ঙ্গে তৈরি করা হছে। সেখানে মোতায়েন করা হবে পারমাণবিক বোমা বহনে সক্ষম ব্যালিস্টিক মিসাইল। সুড়ঙ্গগুলোকে যুক্ত করেছে বেশ কয়েকটি সংযোগকারী সুড়ঙ্গ। ওই ঘাঁটিতে ১২ থেকে ২৪টি পারমাণবিক অস্ত্র মজুত রাখা যাবে বলেও মনে করা হছে। যদিও ভারতের দাবি, সম্মুখ সমরে দেশটির সামনে টিকতে পারবে না ইসলামাবাদ। ফলে চোরাগোপ্তা হামলা ও জঙ্গিবাদের আশ্রয় নিয়েছে তারা। সীমান্তে সংঘাত শুরু হলে কৌশলগত পারমাণবিক মিসাইল হামলার হুমকিও একাধিকবার দিয়েছে পাকিস্তান। এবার দিল্লির কাছেই পরমাণু ঘাঁটি বানিয়ে কড়া বার্তাই দিল পাকিস্তান। তবে পরিস্থিতি বুঝে তৈরি ভারতও। কয়েকদিন আগেই পাকিস্তানের পরমাণু অস্ত্রভা-ার ধ্বংস করতে সক্ষম ভারত বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন এয়ার চিফ মার্শাল বিএস ধানোয়া। শুধু পাকিস্তানের ট্যাকটিক্যাল পরমাণু অস্ত্রই নয়, যে কোনো গোপন অস্ত্রভা-ার বা পরিককাঠামো টার্গেট করে ধ্বংস করতেও সেনা প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত