শিরোনাম

লন্ডনে মসজিদে হামলায় সন্দেহভাজন একজনের নাম প্রকাশ

০১:৩৯, জুন ২০, ২০১৭

যুক্তরাজ্যের উত্তর লন্ডনের সেভেন সিস্টারস রোডের ফিন্সবারি পার্ক মসজিদের কাছে হামলা ঘটনায় সন্দেহভাজন একজনের নাম প্রকাশ করেছে দেশটির পুলিশ। গ্রেফতার হওয়া ওই ব্যক্তির নাম ড্যারেন ওসবর্ন। ৪৭ বছর বয়সী ওসবর্নের বাড়ি কার্ডিফে।

রোববার রাত ১২টার পর তারাবি নামাজ শেষে মুসল্লিরা যখন ঘরে ফিরছিলেন, তখন তাদের ওপর গাড়ি উঠিয়ে দিয়ে হামলা চালানো হয়। এতে একজন নিহত এবং ১০ জন আহত হন। আশপাশের মানুষ ৪৮ বছর বয়সী এক হামলাকারীকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মসজিদের কাছে হামলার ঘটনার পরই পরই ড্যারেন ওসবর্নকে আটক করা হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে। এরপরই কার্ডিফ এলাকার একটি ঠিকানাতে পুলিশ তল্লাশি চালিয়েছে।

যুক্তরাজ্যর নিরাপত্তাবিষয়ক মন্ত্রী বেন ওয়ালেস বলেন, সন্দেহভাজন ড্যারেন ওসবর্ন নিরাপত্তা বাহিনীর কাছে পরিচিত ছিলেন না। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি একা এ কাজ করেছেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, ওসবর্ন ওয়েস্টন-সুপার মায়েতে বড় হয়েছেন। তার চারটি সন্তান রয়েছে।

একজন প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে দ্য টেলিগ্রাফ জানিয়েছে, নিহত ব্যক্তি একজন প্রবাসী বাংলাদেশি বলে জানা গেছে। তবে তাঁর নাম-পরিচয় এখনো প্রকাশিত হয়নি। পুলিশের তরফ থেকে হামলাকারী বা নিহত ব্যক্তির পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি। প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক ব্যক্তি বিবিসিকে বলেছেন, হামলাকারী বলছিলেন যে তিনি সব মুসলমানকে হত্যা করতে চান।

গত তিন মাসে এটি যুক্তরাজ্যে চতুর্থ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা। ২২ মার্চ ব্রিটিশ পার্লামেন্টর সামনে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয় এক পুলিশ সদস্যসহ পাঁচজন। ২২ মে ম্যানচেস্টারের একটি সংগীত অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় নিহত হয় ২২ জন। ৪ জুন লন্ডন ব্রিজ এলাকায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় আটজন নিহত হয়। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের বাইরে ও লন্ডন ব্রিজের ঘটনার মতো এবারও ভাড়া করা গাড়ি দিয়ে হামলা চালানো হয়েছে।

উত্তর লন্ডনের ইজলিংটন এলাকায় অবস্থিত ফিন্সব্যারি পার্ক মসজিদ। তার সামনের ‘সেভেন সিস্টার রোড’ ধরে একটু এগোলেই ‘মুসলিম ওয়েলফেয়ার হাউস’। রাত ১২টার কিছু পর মুসলিম ওয়েলফেয়ার হাউসের বিপরীত পাশে ঘটে এই সন্ত্রাসী হামলা। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে বিবিসি জানায়, নামাজ শেষে বাসায় ফেরার পথে বয়স্ক এক ব্যক্তি রাস্তায় পড়ে যান। অন্য কয়েকজন মুসল্লি তাঁকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার চেষ্টা করছিলেন। এ সময় রাস্তার উল্টা পাশ থেকে একটি গাড়ি হঠাৎ বাঁয়ে মোড় নিয়ে তাদের ওপর উঠে যায়। এ সময় ওই রাস্তা ধরে অনেকেই মসজিদ থেকে বাসায় ফিরছিলেন।

১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত ফিন্সব্যারি পার্ক মসজিদটি যুক্তরাজ্যে বেশ পরিচিত। উগ্রবাদ ছড়ানোর দায়ে এই মসজিদের সাবেক ইমাম আবু হামজাকে ২০০৩ সালে গ্রেফতার করে পুলিশ। ওই সময় মসজিদটি বন্ধ করে দেওয়া হয়। ২০০৫ সালে নতুন ব্যবস্থাপনায় তা আবার চালু হয়। দীর্ঘ আইনি লড়াই শেষে ২০১৫ সালে আবু হামজাকে যুক্তরাষ্ট্রের হাতে তুলে দেয় যুক্তরাজ্য।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত