শিরোনাম

ধর্ষণের পর চলন্ত ট্রেন থেকে ছুড়ে ফেলা হলো কিশোরীকে

২০:৪৬, জুন ১৯, ২০১৭

বিহারের লক্ষ্মীসারাই জেলায় অপহরণের পরে ১৬ বছরের এক স্কুলছাত্রী ছয় দুর্বৃত্তের হাতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে। ওই কিশোরীকে ধর্ষণের পর চলন্ত ট্রেন থেকে ছুড়ে ফেলা দেওয়া হয় বলে পরিবারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে। সে এখন হাসপাতালে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। একজন গ্রেফতার হয়েছেন, বাকিরা পলাতক।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, দশম শ্রেণিতে পড়ুয়া ওই কিশোরী গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বন্ধুর বাড়িতে যাওয়ার পথে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা তাকে অপহরণ করে। জোর করে একটি ট্রেনে তুলে গণধর্ষণ করা হয় এই কিশোরীকে। পরের দিন রেললাইনের পাশ থেকে আহত ও রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় করা মামলায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিরা পলাতক রয়েছে।

এদিকে কিশোরীর পরিবার দাবি করেছে, ধর্ষণের পরে স্কুলপড়ুয়া ছাত্রীকে চলন্ত ট্রেন থেকে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হয়েছে। তবে স্থানীয় পুলিশ এ দাবি প্রত্যাখ্যান করে বলেছে, কিশোরী যখন দেখেছে যে তার স্বজনেরা তার খোঁজে রেলওয়ে স্টেশনে এসেছেন, তখনই সে ট্রেন থেকে লাফ দিয়েছে।

কিশোরীকে বিহারের সরকারি পাটনা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। কিন্তু সেখানে তাকে ভর্তি করতে ছয় ঘণ্টা দেরি করা হয়।

ওই কিশোরীর পরিবার বলেছে, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলেছে, হাসপাতালে বিছানা খালি না থাকায় ওই কিশোরীকে হাসপাতালে ভর্তি করাতে দেরি হয়েছে। মেডিকেল পরীক্ষায় ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন কিশোরীর শারীরিক অবস্থার অবনতি হচ্ছে।

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নিতীশ কুমার বলেছেন, অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি বলেন, এটা একটা জঘন্য অপরাধ। অভিযুক্ত ব্যক্তিরা যাতে পালাতে না পারে, সে জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত