শিরোনাম

‘প্রধানমন্ত্রী হাজির’ হ্যাশট্যাগ চালু করে বিপদে ইমরান খান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  |  ১৭:৩০, জুন ১৯, ২০১৯

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান জনসাধারণের অভিযোগ শোনার জন্য ‘স্টেশন পোর্টাল’ নামে একটি সাইট খুলেছেন সম্প্রতি। সাইটটির কার্যকারিতা বর্ণনা করে তার টুইটারে একটি পোস্টও করেছেন ইতোমধ্যে।

টুইটারের ওই পোস্টে ইমরান খান একটি হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করেন। হ্যাশট্যাগটি হলো, #PMHazirHai বা প্রধানমন্ত্রী হাজির! এই ট্যাগটি স্যোশাল মিডিয়ায় জনগণের ক্ষোভ প্রকাশের সুযোগ করে দিল।

মাইক্রো ব্লগিং ওয়েবসাইট টুইটারে ছড়িয়ে পড়া সমালোচনা-পর্যালোচনার সময় সরকারের সমর্থক এ্যাকটিভিস্টরা যেখানে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করার কথা সেখানে ওই সাইটে অভিযোগ করে কোনো সমাধান না পেয়ে তারা ক্ষোভ প্রকাশের সুযোগ পেয়ে গেছেন।

ফাতেমা আলভি নামের এক এ্যাকটিভিস্ট তার টুইটারে ‘প্রধানমন্ত্রী হাজির’ হ্যাশট্যাগটি দিয়ে লেখেন, তার এক বান্ধবীর প্লট দখল করেছিল ল্যান্ড মাফিয়ারা। স্টেশন পোর্টালে তার ওই বান্ধবী অভিযোগও করেছিল। অভিযোগটি ডিপুটি কমিশনার ও ডিস্ট্রিক্ট পুলিশ অফিসারের কাছে পাঠানো হয়েছিল।

খায়বার পুখতুখাঁর পুলিশ ভিকটিমকে ডেকে নিয়ে অফার করে, তোমার জমি ফিরে পেতে ১২ লাখ রুপি দিতে হবে।

ওই এ্যাক্টিভিস্ট বলেন, অভিযোগ কি তাহলে এভাবে সমাধান করা হবে?

ইমরান খানের জারি করা ‍‘প্রধানমন্ত্রী হাজির’ হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে শত শত এ্যাক্টিভিস্ট ‘স্টেশন পোর্টালে’ অভিযোগ করে সমাধান না পাওয়ার কথা জানাচ্ছেন তাদের টুইটার পোস্টে।

প্রধানমন্ত্রী ব্যতিক্রম একটি সিস্টেম চালু করে সাধারণ জনগণের সমস্যার কোনো সমাধান করতে পারছেন না। উল্টো দুর্নীতিপ্রবণ প্রশাসনের মুখোশ আরো বেশি উন্মোচিত হয়ে যাচ্ছে।

ইমরান খান তার টুইটার পোস্টে বলেছিলেন, ‘স্টেশন পোর্টাল’ চালুর পর ৮ মাসে ১০ লাখ মানুষ অভিযোগ করেছেন। ইতোমধ্যেই ৬ লাখ ৮০ হাজার লোকের সমস্যার সমাধান করা হয়েছে। তিনি এ সাফল্যে আনন্দও প্রকাশ করেন তার পোস্টে।

তবে সামাধান হওয়া অভিযোগের সংখ্যা জানানোর সময় এটা স্পষ্ট করা হয়নি যে, কোনো টেকনিক্যাল সমস্যা বা অন্য কোনো কারণে যেসব অভিযোগের সমাধান করা হয়নি সেগুলো গণনার মধ্যে ছিল কিনা।

উর্দু নিউজ অবলম্বনে সুলাইমান সাদী

এসএস

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত