শিরোনাম

জেল হলো ‘বিদ্বেষপূর্ণভাবে’ ক্রাইস্টচার্চ হামলার ভিডিও শেয়ারকারীর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক  |  ১৩:৩১, জুন ১৯, ২০১৯

চলতি বছরের মার্চ মাসে নিউজিল্যান্ডের শহর ক্রাইস্টচার্চের ২ মসজিদে হামলার ভিডিওটি বিদ্বেষপূর্ণভাবে ফেসবুকে শেয়ার করার অপরাধে এক নাগরিককে জেলে পাঠিয়েছেন নিউজিল্যান্ড আদালত।

সন্ত্রাসী হামলায় অভিযুক্ত ব্রেন্টনের ভিডিওটি শেয়ারকারীদের মধ্যে ক্রাইস্টচার্চের ৪৪ বছর বয়সী ব্যবসায়ী ফিলিপ আর্পসও ছিলেন। বিদ্বেষপূর্ণভাবে ভিডিওটি শেয়ার করার অপরাধে তাকে হামলার কয়েক মাস পরেই গ্রেপ্তার করেছিল পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) অবাঞ্চনীয় বিষয় ভাইরালের অপরাধে ফিলিপকে আদালত ২১ মাসের জন্য জেলে পাঠিয়েছে।

আদালতে রায় ঘোষণার আগে জজ বলেন, অপরাধী বিদ্বেষমূলক ভিডিওটি অন্তত ৩০ জনের সঙ্গে শেয়ার করেছে। সে এটি আরো বেশি বেশি শেয়ার করার জন্য মানুষকে উদ্বুদ্ধ করেছে।

আদালতের তথ্য মতে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা করে মুসলমানদের হত্যার ঘটনায় এ অপরাধী আনন্দ প্রকাশ করেছে। সে শহিদ মুসল্লিদের ব্যাঙ্গাত্মক ছবিও বানিয়েছিল।

ক্রাইস্টচার্চের আল নুর ও লিন উড মসজিদে অস্ট্রেলিয়ান-মার্কিন নাগরিক ২৮ বছর বয়সী ব্রেন্টন ট্যারান্ট একটি অত্যাধুনিক মেশিনগানের মাধ্যমে দুর্ধর্ষ হামলা চালিয়ে অন্তত ৫১ জন মুসল্লিকে শহিদ করেছে এবং ৮০ জনের বেশি মুসল্লিকে আহত করেছে।

এ ঘটনার কয়েকদিন পরই নিউজিল্যান্ড পুলিশ হামলাকারীকে গ্রেপ্তার করে আদলাতে পেশও করেছিল। আদালতে তার ওপর অপরাধও প্রমাণিত হয়। কিন্তু গত ১৪ জুনের এক শুনানিতে ব্রেন্টন তার ওপর আরোপিত সব অভিযোগ অস্বীকার করেছে। অবশ্য পরে তাকে রিমান্ডে দিয়েছে আদালত।

হামলাকারী মসজিদের হামলার ভিডিওটি ফেসবুকে লাইভ সম্প্রচার করেছিল।

অপরাধীর পক্ষ থেকে সম্প্রচার করা ওই লাইভটি নিউজিল্যান্ড সরকারের অনুরোধে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ সরিয়ে নিলেও অনেকেই ভিডিওটি তাৎক্ষণিকভাবে ডাউনলোড করে রেখে আবার শেয়ার দিয়েছে নিজেদের টাইমলাইনে।

ডন নিউজ অবলম্বনে সুলাইমান সাদী

এসএস

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত