শিরোনাম
সংবাদ সম্মেলনে তালুকদার আব্দুল খালেক

দুর্নীতি ও জলাবদ্ধতামুক্ত নগরী উপহার দেয়া হবে

আল মাহমুদ প্রিন্স, খুলনা  |  ১৭:৪৯, মে ১৬, ২০১৮

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র আলহাজ তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, খুলনা মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনের কাজ যেখানে রেখে আমি মেয়র পদ ছেড়েছিলাম সেখান থেকেই আবার শুরু করবো। একই সাথে সততা, নিষ্ঠার সাথে কাজ করে দুর্নীতিমুক্ত খুলনা সিটি কর্পোরেশন উপহার দেব।

সদ্য নির্বাচনে ব্যাপক ভোট ডাকাতির অভিযোগ এনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জুর একশ কেন্দ্রে পুনরায় ভোট গ্রহণের দাবির বিষয়ে তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, ‘আমি শুনেছি তিনটি কেন্দ্রে কিছু সমস্যা হয়েছে। তাই বলে একশ কেন্দ্রে আবার ভোটগ্রহণ করতে হবে এমন দাবি কেউ মেনে নেবে না। আগামী জাতীয় নির্বাচন ও নির্বাচন কমিশনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতেই তিনি এমন দাবি করেছেন। খালেক বলেন, নির্বাচনে যদি তারা জয়লাভ করতো তাহলে নির্বাচন ঠিক হতো আর এখন পরাজয় মেনে নিতে না পেরে আবোলতাবোল বকতে শুরু করেছে। কিন্তু ২০১৩ সালের নির্বাচনে আমি তো পরাজিত হয়েছিলাম। কিন্তু কোনো কথা বলিনি।

তিনি আরও বলেন, খুলনাকে মাদকমুক্ত করা হবে। মাদককে জিরো টলারেন্সে আনা হবে। মাদকমুক্ত করতে সব প্রচেষ্টা চালাবেন বলেও অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন। মাদকের সাথে আমার দলেরও কেউ যদি জড়িত থাকে, তাহলে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা গ্রহণ করবো। বুধবার(১৬মে) বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনা প্রেস ক্লাবের লিয়াকত আলী মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন তিনি।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, নজরুল ইসলাম মঞ্জুর সাথে চরমপন্থিদের সখ্য ছিল। তারাই নির্বাচনে তাদের ব্যবহার করেছে। কিন্তু তারা যখন চরমপন্থিদের সামলাতে পারেনি তখন আইন করে তাদের ধরে ক্রসফায়ারে দিয়েছে। আমরা সন্ত্রাসী ও চরমপন্থিদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান গ্রহণ করবো।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধান নির্বাচনি এজেন্ট শেখ হারুনার রশিদ, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এসএম কামাল হোসেন, নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজান এমপি, বিসিবির পরিচালক শেখ সোহেল, মুন্সি মাহবুবুল আলম সোহাগ, মফিদুল ইসলাম টুটুল, সাইয়েদুজ্জামান সম্রাট প্রমুখ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত