শিরোনাম

এফআর টাওয়ারে দুর্নীতি : রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ অর্ধশতাধিক চিহ্নিত

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৫:৪৪, মে ২২, ২০১৯

অবশেষে রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ার অগ্নিকাণ্ডের তদন্ত রিপোর্ট প্রকাশ করেছে সরকার। তদন্তে প্রতিবেদনে নকশা অনুমোদনে বিধি লঙ্ঘন এবং নির্মাণের ক্ষেত্রে ত্রুটি বিচ্যুতির জন্য রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ অর্ধশতাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারীকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

বুধবার (২২মে) গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম এক সংবাদ সম্মেলনে এ তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করে বলেন, যাদের নাম এ রিপোর্ট এসেছে, তাদের বিরুদ্ধে বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

তিনি আরও জানান, এফ আর টাওয়ারের কথিত ২৩ তলা বিশিষ্ট নকশাটি বৈধতা দেয়ার জন্য বিভিন্ন রেজিস্ট্রারে অবৈধ এন্ট্রি ও ইস্যু দেখিয়ে এবং ঐ নকশার সাহায্যে বিভিন্ন ফ্লোর হস্তান্তরকরণ, বন্ধক অনুমতি প্রদান এবং ঋণ গ্রহণের অনুমতি প্রদান ইত্যাদির সাথে জড়িত রাজউকের কর্মকর্তা-কর্মচারী হচ্ছেন ৩৩ জন। আর বিধি লঙ্ঘনের সঙ্গে জড়িত রাজউকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ ৭ জন। এছাড়া তদন্ত কমিটির রিপোর্টে আর অভিযুক্ত হয়েছেন বিভিন্ন পেশার ১৩ জন।

তদন্ত কমিটি বলেছে, এফ আর টাওয়ারের ১৮ তলার নকশা অনুমোদন করা হয়েছিল বিধি লঙ্ঘন করে। তার ওপরে আরও পাঁচটি ফ্লোর নির্মাণের নকশাকে বৈধতা দিতে বিভিন্ন পর্যায়ে দুর্নীতি হয়। ত্রুটি ও নিয়মের বত্যয় ছিল ভবনটি নির্মাণের ক্ষেত্রেও।

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান রূপায়ন হাউজিং লিমিটেড ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে নকশার ব্যত্যয় ঘটিয়েছে বলে প্রমাণ পেয়েছে তদন্ত কমিটি।

পাশাপাশি ওই জমির মালিক সৈয়দ মো. হোসাইন ইমাম ফারুক এবং এফ আর টাওয়ার ওনার্স সোসাইটিও অগ্নি দুর্ঘটনার দায় এড়াতে পারে না বলে কমিটি মনে করছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৮ মার্চ, দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে বনানীর এফ আর টাওয়ারে আগুনের সূত্রপাত হয়। এ অগ্নিকাণ্ডে ২৬ জনের প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছেন ৭০ জনেরও বেশি মানুষ।

এমএআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত