শিরোনাম

‘বিয়ে’ সবাই করে, ইতিহাস জানেন ক’জন?

আমার সংবাদ ডেস্ক  |  ১৩:৫৮, আগস্ট ০৭, ২০১৯

বিয়ে একটি সামাজিক ও ধর্মীয় রীতি। তবে মানব সভ্যতার সূচনাপর্বে বিয়ে প্রথা প্রচলিত ছিল না। প্রথমত স্বেচ্ছাচারিতা কমানো, দ্বিতীয়ত সম্পত্তির উত্তরাধিকার নির্দিষ্ট করার জন্য যৌন সম্পর্ক স্থাপনের ক্ষেত্রে ক্রমশ নানা রকম বিধি বিধানের প্রচলন হয়। পরিবার গড়ে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে এ প্রয়োজন অনুভূত হয়।

ডঃ ওয়েস্টমার্ক হিস্ট্রি অব হিউম্যান ম্যারেজ গ্রন্থে বলেছেন, বিয়ের উৎস হচ্ছে পরিবার প্রথা।

পরিবারের কেন্দ্রবিন্দু পিতা। তার ওপর অর্পিত হয় পরিবারের ভরণপোষণ ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব।

অন্যদিকে মা সন্তান পালন ও গৃহকর্মের দায়িত্ব নেন। এ প্রথা ক্রমে সমাজ ও আইনের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠিত হয়। এ থেকে জন্ম নেয় স্বামী স্ত্রীর সম্পর্কের ভিত্তি।

মর্গান, ব্যাকোফেন, ব্যাস্টিক্যান, উইনক্যানস প্রমুখ সমাজ বিজ্ঞানীর ধারণা, মানুষ যখন সমাজবদ্ধ হওয়ার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করে তখন থেকেই বিয়ে প্রথার সূচনা।

তাদের গবেষণা মতে, পরিবার ও দলের আভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃংখলা, সন্তান পালন ও লোকবল বাড়াতে বিয়ে প্রথা জরুরী হয়ে উঠে। এরপর ক্রমশ সমাজে দেখা দেয় ধর্মীয় মূল্যবোধ। পিতৃতান্ত্রিক সমাজে মেয়েদের বিয়ে করে স্বামীর সংসারে আসার নিয়ম প্রচলিত হয়।

অন্যদিকে মাতৃতান্ত্রিক সমাজে পুরুষরা বিয়ে করে স্ত্রীর সংসারের স্থায়ী সদস্য হওয়ার বৈধতা অর্জন করে।

বর্তমান যুগে স্ত্রী শুধু সহধর্মিনী নন, সহকর্মীও বটে। বিয়ে এখন শুধু একত্রবাসের পূর্বশর্ত নয়, বরং দু’পক্ষের সানন্দ সম্মতিক্রমে যুগল জীবনযাপনের অঙ্গীকার। পৃথিবীতে নানা রকম বিয়ে প্রথা বা বিবাহ সম্পর্ক প্রচলিত রয়েছে। সভ্যতা বিকাশের সঙ্গে সঙ্গে কোন কোন প্রথা লুপ্ত বা নিষিদ্ধ হয়েছে। আবার উদ্ভব হয়েছে নতুন নতুন প্রথার।

বিশেষজ্ঞরা বিয়ে প্রথাকে ভাগ করেছেন প্রধানত চারভাগে। (১) একপতিক বিয়ে (২) বহুপতিক বিয়ে (৩) বহুস্বামী বিয়ে (৪) দলগত বিয়ে।

একই কালে একজন স্ত্রী গ্রহণ একপতীক বিয়ের বৈশিষ্ট্য। একই সঙ্গে একাধিক স্ত্রী বিয়ের নাম বহুপতিক বিয়ে।

একাধিক বিয়ের পেছনে যেসব কারণ বিদ্যমান সেগুলো হচ্ছে (১) পুরুষের বহুগামী স্বভাব (২) রাষ্ট্র ও সমাজে পুরুষ প্রাধান্য (৩) অধিক সন্তান লাভের আকাংখা।

সামন্তযুগে বহু বিয়ে ছিল আভিজাত্যের লক্ষণ। বর্তমান সমাজে এ প্রথা নিন্দনীয় হলেও বিলুপ্ত হয়নি। বহুস্বামী গ্রহণ অনেক আগেই সামাজিকভাবে রহিত হয়েছে। মোগল আমলের শেষভাগ পর্যন্ত সিংহল ও দক্ষিণ ভারতের কোন কোন অঞ্চলে এ প্রথা প্রচলিত ছিল।

বর্তমানে ক্যানারি দ্বীপপুঞ্জের কতিপয় সম্প্রদায়ে তিব্বতী এবং এস্কিমো জাতিতে বহুপতিত্ব প্রথা দেখা যায়। বর্তমান যুগে ভারতের জওনসারী এবং রাজস্থানের জা-সম্প্রদায়ের মধ্যে আজও বড় ভাইয়ের স্ত্রী ছোট ভাইদের স্ত্রী হিসেবে গণ্য হয়।

জেডআই

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত