শিরোনাম

নয়নাভিরাম রাতের চরফ্যাশন!

ফরহাদ হোসেন, ভোলা  |  ১৩:০১, জুন ১৯, ২০১৯

রাতে রং-বেরংয়ের আলোতে সুসজ্জিত আলোয় অন্যরকম দৃশ্য ধারণ করে। চারদিকে তাকালে দেখা মিলে আকাশের তারার মতো দূরে, বহু দূরে মিটমিটয়ে আলো জ্বলছে আবার নিভছে। খালি চোখে চারদিকে তাকালে দেখা মিলে সবুজের সমারোহ। এ যেন এক সবুজের দেশ। উঁচু টাওয়ার থেকে নিচে তাকালে ছোট ছোট বাড়িঘর যেন শিশুদের খেলনার আসর।

দেশের একমাত্র নদীবেষ্টিত ও সাগর মোহনায় গড়ে ওঠা দ্বীপজেলা ভোলার চরফ্যাশনে সুউচ্চ দৃষ্টিনন্দন এই জ্যাকব টাওয়ার। বিনোদন পার্ক আর ফ্যাশন স্কয়ার-সব মিলিয়ে সৌন্দর্য্যে ছেয়ে গেছে পুরো শহর। দেখে মনে হবে যেন নৈসর্গিক পরিবেশ।

এতোক্ষণ যে চিত্রের কথা বলছিলাম তা ভোলার চরফ্যাশন উপজেলা সদরের চিত্র। পুরো শহরজুড়ে নান্দনিক স্থাপনা মন কাড়ে পর্যটকদের। এসব সৌন্দর্য্য শহরকে যেন পরিণত করেছে পর্যটন নগরীতে।

এ উপজেলা সদরে রয়েছে দৃষ্টিনন্দন জ্যাকব টাওয়ার। দিনের আলোর চেয়ে রাতের অন্ধকার এ টাওয়ারের সৌন্দর্য্য যেনো বহুগুণে বাড়িয়ে দেয়। দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার সর্বাধুনিক ১৮ তলা বিশিষ্ট ২২৫ ফুট উঁচু জ্যাকব টাওয়ার দেখতে মানুষের আগ্রহের যেন কমতি নেই। ঈদসহ বিভিন্ন ছুটিতে মানুষ এখানেই ছুটে আসেন।

এ টাওয়ারে রয়েছে লিফট। ফলে বহু উঁচুতে উঠে টেলিস্কোপের মাধ্যমে আশপাশের নদী-সাগর-চরাঞ্চল-ম্যানগ্রোভ বন আর লোকালয়ের নৈসর্গিক দৃশ্য দেখে মন জুড়াতে পারেন এখানে আসা পর্যটকরা। আর রাতে টাওয়ারজুড়ে বাহারি রঙের আলো আরও বেশি আকর্ষিত করে ভ্রমণ পিপাসুদের।

এছাড়া শহরের অন্য আকর্ষণীয় স্থানগুলোর মধ্যে রয়েছে-ফ্যাশন স্কয়ার এবং শেখ রাসেল শিশু ও বিনোদন পার্ক। ওই স্থানগুলোতেও সবসময়ই থাকে পর্যটকদের ভিড়। দিনের পাশাপাশি রাতেও নান্দনিক আলোতে মন জুড়িয়ে যায় সব বয়সী মানুষের।

অন্যদিকে ফ্যাশন স্কয়ারের জেলা পরিষদ চত্বরের পুকুর পাড়ের নান্দনিক ফোয়ারাও মন জুড়ায় দর্শনার্থীদের। চত্বরে বাহারি রঙের মিতালির পাশাপাশি রয়েছে এলইডি টিভি।
চরফ্যাশন উপজেলা সদরের দিনের চেয়ে রাতের সৌন্দর্য্যই দর্শনার্থীদের বেশি আকৃষ্ট করে। তাই রাতের সৌন্দর্য্য দেখতেই বিভিন্ন এলাকা থেকে ছুটে আসেন দর্শনার্থীরা।

চরফ্যাশন উপজেলাকে পর্যটন নগরীর রূপে সাজিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও সাবেক উপ-মন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। সেই ধারাবাহিকতাতেই একে একে গড়ে উঠছে দৃষ্টিনন্দন স্থাপনা। জেলা ও জেলার বাইরে থেকে প্রতিদিন হাজারো পর্যটক ছুটে আসেন এসব স্থাপনা দেখতে।

স্থানীয় বাসিন্দা ও ঘুরতে আসা পর্যটকরা জানান, চরফ্যাশন যেনো প্রকৃতির নৈসর্গিত সৌন্দর্য্যে ভরা। এখানে এলেই মুগ্ধতা পায় বিনোদন ও ভ্রমণপ্রিয় মানুষেরা। দিনের বেলাতেও যেমন সৌন্দর্য্য রয়েছে, তেমন রাতের বেলাতেও শহরটি যেনো আলোর খেলায় পরিণত হয়।

এমআর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত