শিরোনাম

বাংলাদেশের শিক্ষাব্যবস্থাকে অনুসরণ করছে পাকিস্তান: শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৭:৫৯, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

দেশের শিক্ষাব্যবস্থার মানের প্রশংসা করতে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দায়িত্ব নেওয়ার পর আগামী ৫ বছরের মধ্যে দেশটির শিক্ষাব্যবস্থা সুইডেনের মানে উন্নীত করার কথা বলেছেন। তার এ পরিকল্পনার জবাবে পাকিস্তানের বিশেষজ্ঞরা ইমরান খানকে বলেছেন, ৫ বছর নয় প্রয়োজনে ১০ বছর সময় নিন, শিক্ষাব্যবস্থাকে বাংলাদেশের মানে উন্নীত করুন।

শুক্রবার (১৪সেপ্টেম্বর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা ও বৃত্তিপ্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ডিআরইউর সদস্যদের মধ্যে যাদের সন্তান ২০১৮ সালের মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এইচএসসি) পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে তাদেরকে প্রতি বছরের মতো এবারও সংবর্ধনা দেওয়া হয়। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানটি ডিআরইউ’র গোলটেবিল মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতি শিক্ষার্থীকে একটি ক্রেস্ট, একটি সনদ এবং নগদ টাকা দেওয়া হয়।

ডিআরইউ সভাপতি সাইফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন- সাউথ বাংলা এগ্রিকালচার ব্যাংকের (এসবিএসি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও নির্বাহী কর্মকর্তা মো. গোলাম ফারুক। কৃতি শিক্ষার্থী সংবর্ধনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক ও ডিআরইউ’র যুগ্ম সম্পাদক মো. মঈন উদ্দিন খানের পরিচালনা পরিচালনায় এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন উপ-কমিটির সদস্য সচিব ও সংগঠনের কল্যাণ সম্পাদক কাওসার আজম। অনুষ্ঠানে ডিআরইউ’র সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ স্বগত বক্তব্য এবং সাবেক সভাপতি শাহেদ চৌধুরী সংবর্ধিত শিক্ষার্থীর অভিভাবক হিসেবে বক্তব্য রাখেন। কৃতি শিক্ষার্থী হিসেবে তাবাসসুম মোস্তফা অথৈ ও আতিয়া ফাইরোজ চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসজিডি) ৪ নম্বর ধারা অনুযায়ী শিক্ষারমানের প্রতি সরকারের মনোযোগ রয়েছে উল্লেখ করে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, বর্তমান এবং আগামী দিনের প্রজন্মকে মানসম্মত শিক্ষার মাধ্যমে ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তোলাই বর্তমান সরকারের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য।

শিক্ষাব্যবস্থায় কোনো ভুল বা ক্রুটি থাকলে তা ধরিয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ভুল হলে বলবেন, আমরা তা স্বাগত জানাই। কেননা আমরা মানসম্মত শিক্ষাব্যবস্থা গড়তে চাই। আমরা এগিয়ে যেতে চাই, তাই সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।

নুরুল ইসলাম নাহিদ কৃতী শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, তোমাদের এ সাফল্য অব্যহত রাখতে হবে। তোমরা এ দেশের সম্ভাবন,া আগামী দিনের যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে উঠবে তোমাদের মধ্য থেকেই। প্রশ্নপত্র ফাঁস প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন সরকারের কঠোর পদক্ষেপে প্রশ্নপত্র ফাঁস বন্ধ হয়েছে। একটি মহল প্রশ্ন পত্র ফাঁসের গুজব ছড়িয়ে সমাজে বিশৃঙ্খলা ও উদ্বেগ ছড়ানোর অপচেষ্টা চালায়। আইন শৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত