শিরোনাম

জালিয়াতির অভিযোগ ছাড়াই ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা সম্পন্ন

ঢাবি প্রতিনিধি  |  ১৭:০৬, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮

সুষ্ঠু, সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশে শেষ হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত গ-ইউনিটের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষা। এতে কোনরকম প্রশ্নফাঁস বা ভর্তি জালিয়াতির অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরে মোট ৫৪টি কেন্দ্রে সকাল ১০টায় এই পরীক্ষা শুরু হয়। এক ঘণ্টার এই পরীক্ষায় ১২০ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্নের উত্তর দিতে হয় পরীক্ষার্থীদের।

এ বছর 'গ’ ইউনিটের ১ হাজার ২৫০টি আসনের বিপরীতে ভর্তিচ্ছুর সংখ্যা ২৬ হাজার ৯৬০ জন। অর্থাৎ প্রতি আসনের বিপরীতে ভর্তির লড়াই করছে ২১ জন।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাস সংলগ্ন কেন্দ্রগুলোর বাইরে এবার লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি ইনস্টিটিউ এবং বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল ও কলেজে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়।

শুক্রবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আআখতারুজ্জামান ও প্রক্ট্রর একেএম গোলাম রব্বানী বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখেন পরিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন।

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও মোবাইল ফোনসহ যে কোনো ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ থাকে। জালিয়াতি ঠেকাতে কেন্দ্রেগুলোর প্রবেশমুখে মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে তল্লাশি করে পরীক্ষার্থীদের হলে ঢুকতে দেওয়া হয়।

এছাড়াও যে কোনো ধরনের অনিয়ম ও জালিয়াতি ঠেকাতে পরীক্ষার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরিয়াল টিমের পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালত দায়িত্ব পালন করছে।

পরীক্ষার সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর একেএম গোলাম রব্বানী এক অনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে বলেন, আমরা আনন্দিত যে, আজকের পরীক্ষা সুষ্ঠু, সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশে শেষ হয়েছে। কোনপ্রকার প্রশ্নফাঁস বা ভর্তি জালিয়াতির খবর পাওয়া যায়নি।

এসময় তিনি সুষ্ঠুভাবে পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ায় পরীক্ষার সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।আগামী পরীক্ষাগুলো সুন্দরভাবে শেষ করতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকসহ সকলের সহযোগিতাও চান তিনি। একই সাথে প্রশ্নফাঁস ও ভর্তি জালিয়াতি ঠেকাতে সকলকে সচেতন থাকার অনুরোধ জানান তিনি।

পরীক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেও কোন অভিযোগ পাওয়া যায় নি। রাবেয়া আক্তার মিশু নামে এক পরীক্ষার্থী বলেন, কোনরকম সমস্যা ছাড়াই পরীক্ষা দিয়েছি। কোথাও কোন সমস্যা হয়নি। সবমিলিয়ে সার্বিক পরিস্থিতিভালই মনে হয়েছে। রুবায়েত হাসনাত নামে আরেক পরীক্ষার্থী জানান, কোন ভোগান্তি ছাড়াই পরিক্ষা দিয়েছি। প্রশ্নেও কোন সমস্যা ছিল না।

এ বছর বিশ্ববিদ্যালয়ের পাঁচটি ইউনিটে ৭ হাজার ১২৮টি আসনের বিপরীতে মোট ২ লাখ ৭২ হাজার ৫১২জন প্রার্থী আবেদন করেছে। এই হিসাবে প্রতি আসনের বিপরীতে পরীক্ষার্থী থাকছেন ৩৮ জন।

আগামী ২১ সেপ্টেম্বর খ-ইউনিট, ২৮ সেপ্টেম্বর ক-ইউনিট, ১২ অক্টোবর ঘ-ইউনিট, ১৫ সেপ্টেম্বর চ-ইউনিটের সাধারণ জ্ঞান অংশের এবং ২২ সেপ্টেম্বর চ-ইউনিটের অংকন অংশের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদভুক্ত গ-ইউনিটের এই পরীক্ষার মাধ্যমে শুরু হল সারাদেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তিযুদ্ধ।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত