শিরোনাম

গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১০০ শিক্ষার্থীর জীবন অনিশ্চিত!

নিজস্ব প্রতিবেদক  |  ১৩:২৮, জুন ২৪, ২০১৯

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) ৫টি বিভাগকে অবৈধ ঘোষণা করায় সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের (গবি) প্রায় ১১০০ শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবন অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টির এমবিবিএস ও বিডিএসে ৬ শতাধিক, বিবিএতে ২ শতাধিক, ফিজিওথেরাপিতে ৩ শতাধিক শিক্ষার্থী অধ্যায়ন করছেন। বিভাগগুলোকে অবৈধ ঘোষণায় বিপাকে পড়েছেন এসব শিক্ষার্থী।

গত ১৮ জুন ইউজিসি বিশ্ববিদ্যালয়টির ১৮টি বিভাগের মধ্যে ৫ টি বিভাগকে অবৈধ ঘোষণা করে (১৮ জুন) পত্রিকায় ‘গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অবস্থা সংক্রান্ত গণ বিজ্ঞপ্তি’ দিয়েছে। এতে হতাশ হয়ে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা।

শিক্ষার্থীরা দাবি করেন, ইউজিসি শিক্ষার্থীদের জীবন অনিশ্চয়তার দিকে ঠেলে দিয়েছে।

ইউজিসি সূত্রে জানা গেছে, প্রোগ্রামসমূহে মহামান্য হাইকোর্ট ডিভিশনের ছয় মাসের স্থগিতাদেশ থাকার জন্য (রিট পিটিশন নং ৭১৯৬/২০১৭) কমিশনের ওয়েবসাইটে আপলোড করা হয়েছিল। বর্তমানে উক্ত স্থগিতাদেশ এর কার্যকারিতা ভ্যাকেট হয়ে যাওয়ায় প্রোগ্রামসমূহ অনুমোদিত/বৈধ বলে বিবেচিত হবে না। তবে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের বৈধ অন্য প্রোগ্রামসমূহে ভর্তি হতে কোন বাধা নাই।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ১৯৯৮ সালে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার সময়ই বিভাগগুলোর অনুমোদন নেওয়া হয়। শুরু থেকে সব বিভাগ চালু করা সম্ভব হয়নি। পরবর্তী সময়ে ২০১২ সালের পর থেকে একে একে বিভাগগুলো চালু করতে গেলে বাধা দেয় ইউজিসি।

কর্তৃপক্ষ জানায়, ২০১০ সালের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইনে বাধা দেওয়া হয়। এরপর নতুন করে আবার আবেদন করে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কিন্তু অনুমোদন দেয়নি ইউজিসি। এরপর উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। হাইকোর্টের নির্দেশে পরিচালিত হতে থাকে প্রোগ্রামসমূহ।

ইউজিসির বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের পরিচালক ড. মোঃ ফখরুল ইসলাম বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০১০ অনুযায়ী নতুন বিভাগ খোলার শর্ত পূরণ না হওয়াতেই প্রোগ্রামসমূহকে অবৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। তবে ভর্তি হওয়া শিক্ষার্থীদের দায় আমাদের না এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের।

এসএস

 

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত