শিরোনাম

ধূমপায়ীদের ভর্তি বন্ধ

প্রিন্ট সংস্করণ॥রাসেল মাহমুদ  |  ১২:৪০, মে ১৩, ২০১৯

বর্তমানে সমাজের প্রতিটি স্তরে ছড়িয়ে পড়েছে মাদকদ্রব্য। মাদকদ্রব্যের ভয়াল থাবা প্রতিনিয়ত গ্রাস করছে যুব সমাজকে। আর মাদকের প্রাথমিক স্তর বলতে বোঝায় ধূমপানকে। ধূমপান থেকেই ভয়াবহ মাদকাসক্ত হয়ে পড়ছে যুবসমাজ।

ফলে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে যুবসমাজকে রক্ষায় অভিনব এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজধানীর শীর্ষ দুটি কলেজ নটরডেম কলেজ ও সেন্ট যোসেফ কলেজ। প্রতিষ্ঠান দুটি একাদশ শ্রেণিতে ধূমপায়ীদের ভর্তি না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ইতোমধ্যে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে এ সংক্রান্ত নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

ওই নির্দেশনায় বলা হয়, যেসব শিক্ষার্থী ধূমপান করে তাদের কলেজ দুটিতে ভর্তির জন্য আবেদন করার প্রয়োজন নেই। তবে ধূমপায়ীদের কীভাবে শনাক্ত করা হবে বিজ্ঞপ্তিতে সে বিষয়ে কোনো উল্লেখ নেই। একই সাথে প্রতিষ্ঠানের নির্ধারিত ইউনিফর্ম পড়াও বাধ্যতামূলক বলে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়।

জানা যায়, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত একাদশ শ্রেণির ভর্তি নীতিমালার কয়েকটি ধারা উল্লিখিত কলেজ দুটির জন্য প্রযোজ্য নয়। তাই নিজস্ব প্রক্রিয়ায় শিক্ষার্থী ভর্তি করবে তারা। গত ৬ মে এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফল প্রকাশের পরদিন ৭ মে ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে কলেজ দুটি। সেখানে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিতে কীভাবে আবেদন করতে হবে এবং অন্য কি শর্ত রয়েছে তা জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তির শেষাংশে উল্লেখ করা হয় ধূমপায়ীদের আবেদন করার প্রয়োজন নাই।

এদিকে এ বিষয়টিকে ইতিবাচকভাবেই নিয়েছেন অভিভাবকরা। তারা বলছেন, মূলত উচ্চ মাধ্যমিকে ভর্তি হওয়ার পর থেকেই ছেলেমেয়েরা বাবা-মা পরিবার ছাড়া থাকে। দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হোস্টেল বা মেসে থেকে লেখাপড়া করে। এ সময় বিভিন্ন ধরনের মানুষের সাথে তাদের পরিচয় হয়। তাই কে কেমন তা জানার সুযোগ থাকে না।

এ জন্য ভর্তির পূর্বেই যদি ধূমপানের বিষয়টি ক্লিয়ার হওয়া যায়, তাতে অন্তত কিছুটা চিন্তা কমে। নটরডেম কলেজে ভর্তিচ্ছু এক শিক্ষার্থীর অভিভাবক আলাউদ্দিন বিশ্বাস বলেন, কলেজ কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত খুবই ভালো। তবে ধূমপানকারী কোনো শিক্ষার্থী যদি আবেদন করে, তাকে কীভাবে শনাক্ত করা হবে তা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়নি। ফলে ভর্তি বিজ্ঞপ্তির ওপর শতভাগ আস্থা রাখাও মুশকিল।

লালন সরকার নামের একজন ভর্তিচ্ছু বলেন, সেন্ট যোসেফ আর নটরডেম কলেজ ধূমপায়ীদের ভর্তি করবে না। ভর্তিপরীক্ষার জন্য এদের আবেদন করতেও নিষেধ করেছে। বিষয়টি খুবই ভালো। বিনয় দাশ নামের একজন শিক্ষার্থী বলেন, এভাবে ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে ধূমপায়ীদের আবেদন না করার নির্দেশনা দিয়ে ধূমপায়ীদের আবেদন করা থেকে বিরত রাখা যাবে কিনা তা নিয়ে আমার যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে।

তবে বিষয়টি বেশ ইতিবাচক। তবে বিষয়টি নিয়ে নটরডেম কলেজ ও সেন্ট যোসেফ কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলার জন্য মুঠোফোনে যোগাযোগ করলেও তাদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। মুঠোফোনে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েও কোনো বক্তব্য মেলেনি।

এদিকে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ইতোমধ্যে আবেদন গ্রহণ শুরু করেছে কলেজ দুটি। নটরডেম কলেজে গত ৭ মে থেকে অনলাইনে এ আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। আবেদন চলবে আজ রাত ১২টা পর্যন্ত। তবে আগামীকাল দুপুর ১২টা পর্যন্ত বিকাশের মাধ্যমে টাকা জমা দেয়া যাবে। পরীক্ষায় অংশ নিতে দুটি ওয়েবসাইট (http://ndc.mbilladmission.com, www.notredamecollege-dhaka.com) থেকে আবেদন করা যাচ্ছে।

ভর্তি বিজ্ঞপ্তি বলছে, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অনুমতি নিয়ে কলেজটি নিজস্ব প্রক্রিয়ায় ভর্তির কার্যক্রম শুরু করেছে। ভর্তি আবেদন বাবদ ২৬০ টাকা নিচ্ছে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি। বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির জন্য জিপিএ-৫, মানবিকে জিপিএ-৩ এবং ব্যবসায় শিক্ষায় জিপিএ-৪ পাওয়া শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবে।

এছাড়া বিভাগ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ব্যবসায় শিক্ষায় যেতে চাইলে বিজ্ঞান থেকে জিপিএ-৪.৫ এবং ব্যবসায় শিক্ষা থেকে মানবিকে যেতে চাইলে জিপিএ-৩.৫ পেতে হবে। প্রতিষ্ঠানটি এবার বিজ্ঞানে ২০৮০ জন, মানবিকে ৪০০ এবং ব্যবসায় শিক্ষায় ৭৫০ জন শিক্ষার্থীর ভর্তি নেবে। আগামী ১৬ মে জাতীয় পত্রিকায় প্রকাশিত আবেদনের আইডি নম্বর অনুযায়ী লিখিত পরীক্ষার সময় ও কক্ষ নম্বর প্রকাশ করা হবে। ১৭ মে (শুক্রবার) এ ভর্তিপরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

সেন্ট যোসেফ কলেজে ভর্তিপরীক্ষার জন্য আবেদন শুরু হবে আগামী ১৯ মে থেকে। ফরম বিতরণ করা হবে ২৫ মে পর্যন্ত। আবেদন চলাকালীন সময় সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত আবেদন ফরম সংগ্রহ ও জমা দেয়া যাবে। যেদিন ফরম সংগ্রহ করবে সেদিনই জমা দিতে হবে। ফরমের মূল্য রাখা হবে ২০০ টাকা। আগামী ১ ও ২ জুন ভর্তিপরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সেন্ট যোসেফে একাদশ শ্রেণির বিজ্ঞান বিভাগে ভর্তির জন্য বাংলা ভার্সনে জিপিএ-৫, বিজ্ঞান বিভাগে ইংরেজি ভার্সনে জিপিএ ৪.৮৯ পয়েন্ট থাকতে হবে। এছাড়াও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে বাংলা ভার্সনের জন্য জিপিএ-৩.৫০ এবং মানবিক বিভাগ বাংলা ভার্সনের জন্য জিপিএ ২.৭৫ থাকতে হবে।

গ্রুপ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে বিজ্ঞান থেকে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে জিপিএ ৩.৫০, বিজ্ঞান থেকে মানবিকে ৩.৫০ এবং ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ থেকে মানবিক বিভাগে জিপিএ ৩.০০ লাগবে। কলেজটিতে বিজ্ঞান বিভাগের বাংলা মাধ্যমে ৪২০ জন, ইংরেজি ভার্সনে ৮০ জন, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১৭০ জন এবং মানবিক বিভাগে ৭০ জনকে ভর্তি করা হবে।

কলেজটির ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগে দায়েরকৃত এক রিট পিটিশনের প্রেক্ষিতে সেন্ট যোসেফ উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে কলেজের নিজস্ব প্রক্রিয়ায় ভর্তি গ্রহণের জন্য সদয় অনুমতি প্রদান করেছেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত