শিরোনাম

ডাকসুতে অনশনরত আরেক শিক্ষার্থী হাসপাতালে

প্রিন্ট সংস্করণ॥ঢাবি প্রতিবেদক  |  ০১:২৪, মার্চ ১৬, ২০১৯

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এবং হল সংসদের নির্বাচনের ফল বাতিল করে পুনঃতফসিলের দাবিতে চতুর্থ দিনের অনশনে অসুস্থ হয়ে পড়া আরেক শিক্ষার্থীকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। ডাকসুর সমাজসেবা সম্পাদক পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী রবিউল ইসলামকে গতকাল শুক্রবার সকালে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশনস্থল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টারে নেওয়া হয়। অনশনে থাকা গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের রাফিয়া তামান্না বলেন, এখন পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কেউ তাদের সঙ্গে কথা বলেননি। গত ১১ মার্চ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বহু প্রতীক্ষিত ডাকসু ও হল সংসদের নির্বাচন হয়। ভোটের দিন কুয়েত-মৈত্রী হলে বস্তাভর্তি ব্যালট উদ্ধার ও রোকেয়া হলে গ্লগোলের মধ্যে ভোট বর্জনের ঘোষণা দেয় পাঁচটি প্যানেল। পুনঃতফসিল ও রোকেয়া হলের ঘটনায় করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি নিয়ে ভোটের পরদিন সন্ধ্যা ৬টায় টিএসসির রাজু ভাস্কর্যের সামনে অনশন শুরু করেন ছয় শিক্ষার্থী। অনশনের মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়লে দর্শন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের অনিন্দ্য ম্ললকে বুধবার হাসপাতালে নেওয়া হয়। বুধবার তাদের সঙ্গে অনশনে যোগ দেন রবিউল এবং ডাকসু নির্বাচনে বামজোটের আন্তর্জাতিক সম্পাদক প্রার্থী মীম আরাফাত মানব।শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত মানবের পাশাপাশি অনশনে আছেন ভূতত্ত্ব বিভাগের আল মাহমুদ ত্বাহা, পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শোয়েব মাহমুদ, পপুলেশন সায়েন্সের দ্বিতীয় বর্ষের মাঈন উদ্দীন, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের তাওহীদ তানজিম এবং গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের রাফিয়া তামান্না। তাওহীদ স্বতন্ত্র জোটের প্যানেল থেকে ডাকসুর পরিবহন সম্পাদক পদে এবং অনিন্দ্য, শোয়েব ও মাঈন উদ্দিন হল সংসদের বিভিন্ন পদে প্রার্থী ছিলেন। এদিকে ডাকসুর সাবেক ভিপি সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম গতকাল শুক্রবার আবারো টিএসসিতে এক অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পর অনশনকারীদের খোঁজখবর নিতে যান। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এমন একটি নির্বাচন দিয়েছে যাতে এক সাবেক ভিপি হিসাবে আমি লজ্জিত।
এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত